স্বাস্থ্য দপ্তরে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, গ্রেপ্তার আরও ১

বর্ধমান: স্বাস্থ্য দপ্তরে চাকরি করে দেওয়ার নামে প্রতারণার ঘটনায় পুলিশ আরও এক জনকে গ্রেপ্তার করল। ধৃতের নাম প্রশান্ত সিংহ। পূর্ব বর্ধমানের গলসি থানার খামার গ্রামে তার বাড়ি। বৃহস্পতিবার বিকালে অভিযান চালিয়ে রায়না থানার পুলিশ গলসি বাজার এলাকা থেকে তাকে ধরে। স্বাস্থ্য দপ্তরে চাকরি দেওয়ার না প্রতারণার ঘটনায় এই নিয়ে ৭ জনকে গ্রেপ্তার করল রায়না থানার পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃত প্রশান্তর কাছ থেকে দুটি পলিথিন প্যাকেটে ভরে রাখা কয়েকজন চাকরি প্রার্থীর বায়োডাটা উদ্ধার হয়েছে। প্রতারণা কাণ্ডে ধরা পড়ে পুলিশ হেপাজতে থাকা বিশ্বনাথ দে-কে সঙ্গে নিয়ে প্রশান্ত সিংহর বাড়িতেও তল্লাশি চালানো হয়। তল্লাশিতে ২০ হাজার টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন মেলে। পুলিশ সেগুলি বাজেয়াপ্ত করেছে।

- Advertisement -

শুক্রবার ধৃত প্রশান্ত সিংহকে পেশ করা হয় বর্ধমান আদালতে। তদন্তের প্রয়োজন ধৃতকে ৭দিন পুলিশ হেপাজতে নিতে চেয়ে আদালতে আবেদন জানায় তদন্তকারী অফিসার। সিজেএম রতনকুমার গুপ্তা ধৃতকে
৫ দিনের পুলিশি হেপাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

স্বাস্থ্য দপ্তরে চাকরি করে দেবার নামে খণ্ডঘোষের উদয়কৃষ্ণপুরের যুবক নাসিরুদ্দিন মল্লিকের কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারকরা। প্রতারণার ঘটনা বিষয়ে নাসিরুদ্দিন মল্লিক রায়না থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে রায়না থানার পুলিশ তদন্তে নামতেই জালে ধরা পড়ছে প্রতারণা চক্রের একের পর এক পাণ্ডা।