স্বাস্থ্যদপ্তরের কর্মীদের মারধর, ৪ মহিলা সহ ধৃত ১০

90

বর্ধমান: উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র স্থানান্তরের কাজে বাধা এবং স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্মীদের মারধর করার অভিযোগ উঠল পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষে। সোমবার সকালের এই ঘটনায় ৪ মহিলা সহ ১০ জনকে গ্রেপ্তার করে খণ্ডঘোষ থানার পুলিশ। ধৃতরা প্রদীপ মাঝি ওরফে বিপত্তারণ, তাপস খাড়াৎ, রাহুল সাঁতরা, শিবু মাঝি, মিলন ধাড়া, বিজয় মাঝি, অলোকা সাঁতরা, টুলু শী, বন্দনা মাঝি ও শিখা খাড়াৎ। মঙ্গলবার ধৃতদের আদালতে পেশ করা হলে প্রদীপ মাঝি এবং তাপস খাড়াৎ-কে ৪দিনের পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। বাকি ৮ জনকে জেল হেপাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, খণ্ডঘোষ ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের অধীনে নবগ্রামে রয়েছে একটি উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র। যা ভাড়াবাড়ডিতে রয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই পরিকাঠামোর অভাবে ওই উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি পার্শ্ববর্তী বিচখাড়া গ্রামের নব নির্মিত ভবনে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিষয়টি জানাজানি হতেই নবগ্রামের বাসিন্দারা আপত্তি তোলেন। প্রশাসনের বিভিন্ন মহলেও আপত্তির কথা জানান গ্রামবাসীরা। যদিও গ্রামবাসীদের আপত্তি অগ্রাহ্য করেই সোমবার সকালে উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করেন কর্মীরা। রুখে দাঁড়ান গ্রামবাসীরা। শুরু হয় ধস্তাধস্তি। অভিযোগ স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্মীদের মারধর করা হয়। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়তেই পুলিশ সেখানে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অন্যদিকে, সমস্ত ঘটনা উল্লেখ করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ইনচার্জ ডাঃ জয়ন্তী মাহাতো সরকার।

- Advertisement -