কোচবিহার জেলাজুড়ে শুরু ১০০ দিনের কাজ

64

মেখলিগঞ্জ: লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন বহু মানুষ। পাশাপাশি পরিযায়ী শ্রমিকরা বাড়িতে এসে পড়েছেন। এই পরিস্থিতিতে গ্রামীন অর্থনীতি পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে। ভেঙ্গে পড়া অর্থনৈতিক অবস্থা সচল করতে মেখলিগঞ্জ ব্লকজুড়ে শুরু হয়েছে ১০০ দিনের কাজ। প্রাথমিকভাবে ১৪ দিনের কাজ শুরু হলেও তা শেষ হলে দফায় দফায় ১০০ দিনের কাজ চলবে বলে জানা গিয়েছে ব্লক প্রশাসন সূত্রে।

শুক্রবার মেখলিগঞ্জ ব্লকের বাগডোকরা ফুলকাডাবরি গ্রাম পঞ্চায়েতের ঝাংকিরটারিতে ১০০ দিনের কাজ শুরু হয়। বহু পরিযায়ী শ্রমিক, কর্মহীন, মহিলারা এই কাজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। এরপর একে একে সব গ্রাম পঞ্চায়েতেই কাজ শুরু হবে। এ বিষয়ে পরিযায়ী শ্রমিক রতীন বর্মন বলেন, ‘ভিন্ন রাজ্যে কাজ করতাম। করোনার বাড়বাড়ন্তের জন্য কাজ হারিয়ে বাড়িতে এসে বসে আছি, কি করে সংসার চালাবো বুঝতে পারছি না। এই পরিস্থিতিতে ১০০ দিনের কাজ শুরু হওয়ায় কিছু টাকা আসবে।’ গৃহবধূ ফুলমতি বর্মন বলেন, ‘ছেলে মেয়েদের চিকিৎসা থেকে শুরু করে পুষ্টিকর খাবার তুলে দিতেই ১০০ দিনের কাজ করছি। করোনা পরিস্থিতিতে সংসার চালানো কষ্টকর হচ্ছে।‘

- Advertisement -

কোচবিহার জেলা শাসক পবন কাদিয়ান জানান, কর্মহীন মানুষদের কথা ভেবে গোটা জেলায় ১০০ দিনের কাজ শুরু হবে। মেখলিগঞ্জ ব্লকের বিডিও অরুণ কুমার সামন্ত বলেন, ‘কর্মহীন মানুষরা যাতে কাজ পায় তাই ফের ১০০ দিনের কাজ শুরু হয়েছে।’

বাগডোকরা-ফুলকাডাবরি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান কোয়েল রায় অধিকারী বলেন, ‘১০০ দিনে কাজে পরিযায়ী শ্রমিক ও কর্মহীন মানুষদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। আজ আমার বুথে শুরু হল ১০০ দিনের কাজ। জিপি-র প্রত্যেকটি বুথেই ১৪ দিনের জন্য কাজ শুরু হবে।’