কুম্ভমেলায় লক্ষাধিক মানুষের জমায়েত, বাড়ছে করোনা সংক্রমণ

109
ছবিটি সংগৃহীত

নয়াদিল্লি: করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কুম্ভমেলা করতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে উত্তরাখণ্ড সরকার। মানুষের সমাগম বেড়ে চলেছে। এতে করোনা সংক্রমণের ‘সুপারস্প্রেডার’ হয়ে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা বাড়ছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন বিশেষজ্ঞরা। স্বাস্থ্য দপ্তরের রিপোর্ট অনুযায়ী, সোমবার কুম্ভমেলায় প্রায় ২৮ লক্ষ মানুষের জমায়েত হয়েছিল। রবিবার রাত সাড়ে এগারোটা থেকে সোমবার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত সেখানে ১৮,১৬৯ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে করোনা পজিটিভ ১০২ জন। মঙ্গলবার হরিদ্বারে নতুন করে ৫৯৪ জনের দেহে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। গত ২৪ ঘণ্টায় উত্তরাখণ্ডে ১,৯২৫ করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে। সঙ্গে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর।

কুম্ভমেলার বিভিন্ন প্রবেশপথে পুণ্যার্থীদের আরটি-পিসিআর টেস্ট করা আছে কিনা, তা জানতে চাওয়া হচ্ছে ঠিকই। তবে বাস্তবে উঠে আসছে অন্য ছবি। মেলা চত্বরে প্রবেশের জন্য আরটি-পিসিআর রিপোর্ট তো চাওয়া হচ্ছেই না, উপরন্তু করা হচ্ছে না থার্মাল স্ক্রিনিংও। যদিও করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনেই কুম্ভমেলা পরিচালনা করা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী তিরথ সিং রাওয়াত। মেলার সংশ্লিষ্ট আধিকারিক ও পুলিশের তরফে মানুষের ঢল সামাল দেওয়ার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। তবে যে হারে মানুষের ভিড় বাড়ছে তাতে কিছু ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মানা সম্ভব হচ্ছে না।

- Advertisement -