পদ্মশিবিরে ভাঙন, এক হাজার পরিবারের তৃণমূলে যোগ

206

বর্ধমান: ভোট মিটতেই রাজ্যজুড়ে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদানের হিড়িক পড়েছে। সেই পথে হেঁটেই এবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন পূর্ব বর্ধমানের গলসি ১ ব্লকের লোয়াপুর ও কৃষ্ণরামপুরের প্রায় এক হাজার পরিবার। তাঁদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন গলসির বিধায়ক নেপাল ঘোড়ুই, জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সহ সভাপতি মহম্মদ জাকির হোসেন। যদিও জেলা বিজেপি নেতাদের দাবি, এটা স্বেচ্ছায় যোগদান নয়। চাপ সৃষ্টি করেই সর্বত্র বিজেপি কর্মীদের তৃণমূলে যোগ দিতে বাধ্য করা হচ্ছে।

তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার সন্ধ্যায় গলসি ১ ব্লকে নব নির্বাচিত বিধায়ক নেপাল ঘোড়ুইকে সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেই অনুষ্ঠানেই এলাকার বিভিন্ন বুথের বেশ কয়েকজন সভাপতি ও নেতা উপস্থিত ছিলেন। বিধায়ক ও তৃণমূল নেতা জাকির হোসেনের হাত ধরে তাঁরা তৃণমূলে যোগ দেন। তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর তাঁরা জানান, এবারের বিধানসভা ভোটে তাঁরা বিজেপির হয়ে কাজ করেছেন। অথচ দুর্দিনে কোনওদিনই তাঁরা বিজেপি-র কোনও নেতাকে পাশে পান না। তৃণমূল নেতা জাকির হোসেন দুর্দিনে তাঁদের ও দলীয় কর্মীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এসব উপলব্ধি করে তাঁরা স্বেচ্ছায় তৃণমূলে যোগ দেন।

- Advertisement -

তৃণমূল নেতা জাকির হোসেন জানান, ভোটের আগে তৃণমূলের কয়েকজন কর্মীদের ভুলের জন্যে ক্ষোভে তাঁরা বিজেপিতে চলে যান। অভিমান ভুলে বিজেপি-র ১৫১ জন নেতা-কর্মী সহ এক হাজার পরিবার ফের তৃণমূলে ফিরে এসেছেন। দলে তাঁদের সাদরে গ্রহণ করা হয়েছে। যদিও এই বিষয়ে জেলা বিজেপি নেতা সন্দীপ নন্দীর বক্তব্য, সর্বত্র চাপ সৃষ্টি করে বিজেপি কর্মীদের তৃণমূলে যোগ দিতে বাধ্য করা হচ্ছে। এক্ষেত্রেও সম্ভবত সেটাই হয়েছে।