সাগর (মধ্যপ্রদেশ), ১৯ মার্চঃ ১২ বছরের এক নাবালিকাকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল নিজের কাকা ও ভাইদের বিরুদ্ধে। এমনকি ধর্ষণ শেষে নাবালিকার শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করে মাঠে ফেলে দিয়ে যায় অভিযুক্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের সাগরে।

সূত্রের খবর, ১৩ মার্চ স্কুল থেকে ফেরার পথে নিখোঁজ হয়ে যায় ওই নাবালিকা। অনেক খোঁজার পরেও মেয়ের সন্ধান না পেয়ে ১৪ মার্চ পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে তার পরিবার। সেদিনই সন্ধ্যায় একটি মাঠ থেকে মেয়েটির মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এই ঘটনায় মেয়েটির কাকা ও এক ভাইকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বাকি আরও এক ভাই পলাতক। উদ্ধার হয়েছে খুনের অস্ত্র। পুলিশের জেরায় দোষ স্বীকার করে অভিযুক্তরা জানায়, স্কুল থেকে পরীক্ষা দিয়ে মেয়েটি যখন বাড়ি ফিরছিল তখনই এক ভাই তাকে কাকার বাড়ি নিয়ে যায়। সেখানে তিনজন তাকে গণধর্ষণ করে। মেয়েটি সব ঘটনা পুলিশকে জানানোর কথা বলায় তার কাকিমা মারধর করে। পরে মেয়েটির মাথা কেটে দেহ মাঠে ফেলে দিয়ে আসে অভিযুক্তরা।