শ্রমজীবী ক্যান্টিনের ১২৫ দিন উদযাপন

169

রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ পুরসভার ১৩ নং ওয়ার্ডে ১২৫ দিন ধরে চালু আছে শ্রমজীবী ক্যান্টিন। সি পি আই এমের রায়গঞ্জ শহর এরিয়া কমিটির ১৩ নং শাখার উদ্যোগে এই ক্যান্টিন চলছে।প্রতিদিন ২০ টাকার বিনিময়ে এলাকার দু:স্থ মানুষদের পেট ভরে খাবারের ব্যবস্থা করেছেন তাঁরা। যে সমস্ত গনসংগঠন ও সাধারন মানুষ শ্রমজীবি ক্যান্টিন পরিচালনার ক্ষেত্রে এতদিন সহযোগিতা করেছেন তাদের অভিনন্দন বার্তা দিতে আজ ৩৪ নং জাতীয় সড়কের পাশে সভার আয়োজন করা হয়।

পাশাপাশি দিল্লীতে আন্দোলনকারী কৃষকদের পাশে দাঁড়াতে এদিন শ্রমজীবি ক্যাণ্টিনের উদ্যোক্তারা ১০ হাজার টাকা পাঠানোর উদ্যোগ নেন। এদিন সভার শেষে সিদ্ধান্ত হয়, আপাতত শ্রমজীবি ক্যান্টিন বন্ধ রাখা হচ্ছে। আবার লকডাউন শুরু হলে ক্যান্টিন শুরু করা হবে। ১২৫ দিন ধরে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের অভিনন্দন জানাতে উপস্থিত ছিলেন সিপিএমের জেলা সম্পাদক অপূর্ব পাল, দিলিপ নারায়ন ঘোষ, উত্তম পাল, তীর্থ দাস, কার্তিক দাস, প্রিয়রঞ্জন পাল, দীপঙ্কর ঘোষ সহ অন্যান্যরা। সভা শুরুর আগে একটি সুসজ্জিত মিছিল শহর এরিয়া কমিটির কার্যালয় থেকে এসে সভাস্থলে শেষ হয়।

- Advertisement -

ক্যাণ্টিনের অন্যতম উদ্যেক্তা শিক্ষক প্রিয়রঞ্জন পাল জানান, স্বাভাবিক অবস্থা না ফেরা পর্যন্ত এই ক্যান্টিন চালানোর সিদ্ধান্ত নিলেও চাল, ডাল, আনাজ সহ অন্যান্য সামগ্রীর দাম অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় আপাতভাবে বন্ধ রাখা হচ্ছে। পরে পরিস্থিতি বুঝে আবার শুরু করা যাবে। প্রতিদিন প্রায় দুই শতাধিক দু:স্থ মানুষের হাতে ২০ টাকার বিনিময়ে ভাত, সব্জি, ডাল, মাছ অথবা ডিম তুলে দেওয়া হয় এই ক্যান্টিন থেকে।

সিপিএমের জেলা সম্পাদক অপূর্ব পাল বলেন, ‘সাধারন মানুষকে পাশে নিয়ে যে কঠিন কাজ করা যায় তা করে দেখিয়েছে শ্রমজীবি ক্যাণ্টিনের উদ্যেক্তারা। আগামী দিনে যদি আবার পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হয় তাহলে আবার ক্যান্টিন শুরু করা হবে।’