পলাশবাড়িতে থানার ওসি, পুলিশকর্মী সহ করোনা আক্রান্ত আরও ১৪

0
145

পলাশবাড়িঃ সোনাপুর পুলিশ ফাঁড়ির ওসি সহ ৭ জন পুলিশকর্মীর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। রবিবার রাতেই পলাশবাড়ির একই পরিবারের ৫ জন এবং একটি মুদির দোকানের কর্মচারির পরিবারের দু’জনের রিপোর্টও পজিটিভ এসেছে। এই তথ্য জানানো হয়েছে ব্লক স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে। প্রসঙ্গত, গত ২৫ জুলাই পলাশবাড়ির এক পুলিশকর্মী করোনায় সংক্রামিত হন। নিয়ম মেনে তাঁর বাড়ি সংলগ্ন এলাকাকে কনটেনমেন্ট জোন করা হয়।

আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের পলাশবাড়ির দুটি কনটেনমেন্ট জোনের সামনে গিয়ে রবিবার স্থানীয়দের খোঁজ খবর নিলেন স্থানীয় পূর্ব কাঁঠালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান সরোদিনি বর্মন, উপপ্রধান সৌরভ পাল, স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য জীবন সরকার। কনটেনমেন্ট জোনে গিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা। রবিবার ওই পুলিশকর্মীর পাড়ারই ৫ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। সেখান থেকে কিছুটা দূরে পলাশবাড়ির শিলবাড়িহাট বাজার এলাকার দু’জন সিভিক ভলান্টিয়ার করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

বাজার এলাকার একাংশ কনটেনমেন্ট জোন হিসেবে ধরা হয়েছে। এরপর কয়েক ধাপে পলাশবাড়ির বাসিন্দাদের সোয়াব সংগ্রহ করে স্বাস্থ্য দপ্তর। কিছু রিপোর্ট সম্প্রতি নেগেটিভ এসেছে। তবে এখনও অধিকাংশ রিপোর্ট আসা বাকি রয়েছে। এদিকে পরিস্থিতির জেরে গত ৩১ জুলাই থেকে শিলবাড়িহাট বাজার সহ গোটা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় লকডাউন ঘোষনা করে পূর্ব কাঁঠালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত কতৃপক্ষ। গোটা এলাকায় এখনও চলছে পূর্ণ লকডাউন। বন্ধ রয়েছে দোকানপাট,হাটবাজার। এই অবস্থায় দুটি কনটেইনমেন্ট জোনের বাসিন্দাদের কোনও অভিযোগ বা সমস্যা আছে কী না তা জানতেই এদিন বাসিন্দাদের সাথে দূরত্ববিধি বজায় রেখে কথা বলেন জনপ্রতিনিধিরা।

প্রধান সরোদিনি বর্মন ও উপপ্রধান সৌরভ পাল জানান, দুটি কনটেনমেন্ট জোনের একাংশ বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। কারও কোনও সমস্যা হচ্ছে কী না জানতে চাওয়া হয়। তবে এখনও তাঁরা কোনও সমস্যার সম্মুখীন হননি বলে জানিয়েছেন। রবিবার রাতের রিপোর্ট প্রসঙ্গে আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের বিএমওএইচ ডাঃ ভাস্কর সেন বলেন, ‘সোনাপুর ফাঁড়ির ওসি সহ ৭ পুলিশকর্মীর রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। পলাশবাড়ি এলাকারও অন্য ৭ জনের রিপোর্ট পজিটিভ রয়েছে। তবে কারও সেরকম কোনও উপসর্গ নেই। এরা প্রত্যেকেই আগের আক্রান্তদের প্রাথমিক সংস্পর্শে এসেছ