ফের উত্তরপ্রদেশ, দলিত কিশোরীকে ধর্ষণের পর দেহ টুকরো করার অভিযোগ

626

কানপুর : ফের উত্তরপ্রদেশে দলিত কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ। ধর্ষণের পর ওই কিশোরীকে খুন করে দেহ টুকরো টুকরো করে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। এবার ঘটনাস্থল কানপুর দেহাত জেলা। কিশোরীর পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে নিখোঁজ ছিল ১৫ বছরের ওই কিশোরী। শনিবার গ্রামেরই একটি ভুট্টা খেতে তার টুকরো টুকরো দেহ উদ্ধার হয়। সঙ্গে সঙ্গে সেখানে যায় পুলিশ। দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে তারা। ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। দু’জনেই ওই কিশোরীর আত্মীয় বলে জানা গিয়েছে। কানপুর দেহাতের পুলিশ সুপার কে কে চৌধরী জানিয়েছেন, কিশোরীর বাবা বলেছেন তাঁদের সঙ্গে আত্মীয়দের জমি নিয়ে ঝামেলা চলছিল। তখনই অনেকবার তাঁর মেয়েকে খুন করার হুমকি দিয়েছিল তারা। তাই তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সম্পর্কে তারা ওই কিশোরীর জেঠু। ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে প্রচুর পুলিশকর্মী একটি জমির প্রান্তে যাচ্ছেন। সেখানেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েছিল কিশোরীর দেহের টুকরো। এই দৃশ্য দেখে বাড়ির লোকেরা ভেঙে পড়েছেন।

ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, তাঁর সরকার নারী সুরক্ষায় বদ্ধপরিকর। কিন্তু হাথরসের ঘটনার পরেও যেভাবে উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন প্রান্তে একের পর এক ধর্ষণ ও খুনের অভিযোগ উঠছে, তাতে যোগীর আশ্বাস নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকে।

- Advertisement -