ত্রিকোণ প্রেমে বলি নাবালিকা   

104

কিশনগঞ্জ: ত্রিকোণ প্রেমে বলি ১৫ বছরের এক নাবালিকা। কিশনগঞ্জের বাঁশবাড়ি গ্রামের সাবিনা বেগম নামে ওই নাবালিকাকে খুনের অভিযোগ উঠেছে তার প্রেমিকের বিরুদ্ধে। পরিবার সূত্রে খবর, গত ২৬ মে থেকে নিখোঁজ ছিল সাবিনা। তাকে খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে ৩০ মে তার নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ দায়ের করা হয় বাহাদুরগঞ্জ থানায়। এরপর পুলিশ তদন্তে নামে।

অন্যদিকে ৩১ মে কোচাধামন থানার পুলিশ মচকুঁড়ি গ্রামের ভুট্টা ক্ষেতে একটি অজ্ঞাত পরিচিত কিশোরীর মৃতদেহ খুঁজে পাই। মৃতদেহের ছবি পাঠানো হয় আশপাশের সমস্ত থানায়। স্বভাবতই বাহাদুরগঞ্জ থানায় ওই মৃতদেহ উদ্ধারের খবর পৌঁছোতেই মৃতার ভাই মনজুর আলম এবং আরও কিছু পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং দেহটি সাবিনার বলেই শণাক্ত করে তারা। এরপর পুলিশ ওই মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

- Advertisement -

এরপর তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে এই খুনের পিছনে রয়েছে ত্রিকোণ প্রেম। সাবিনার প্রেমিক ছিল রাহিল আলম। অন্যদিকে রাহিলের অন্য এক প্রেমিকা ছিল নাজলি বেগম। সাবিনা এবং নাজলি উভয়েই বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করতে থাকে রাহিলের উপর। এরপরই নাজলি ও রাহিল ষড়যন্ত্র করে খুন করে সাবিনাকে। ৪ জুন রাহিলকে এবং ৫ জুন নাজলিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের কাছে থেকে ৩টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। বিয়ের টোপ দিয়েই মচকুঁড়ি গ্রামে ডেকে সাবিনাকে রাহিল খুন করে বলে জানা গিয়েছে। আর তাকে সাহায্য করে নাজলি বেগম। এদিন তাদের আদালতের নির্দেশে জেল হাফাজতে পাঠানো হয়েছে।