৩০টি আসনে প্রার্থী ১৯১ জন, কোটিপতি ১৯ জন

144

কলকাতা: ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে এ রাজ্যের প্রথম পর্যায়ে ৩০টি আসনের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৯১ জন প্রার্থী। যার মধ্যে মহিলা প্রার্থীর সংখ্যা ২১। শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গ ইলেকশন ওয়াচের তরফে আয়োজিত এক সাংবাদিক বৈঠকে সংগঠনের পক্ষ থেকে ওই কথা জানান উজ্জয়িনী হালিম।

উজ্জয়িনী জানান, এই ১৯১ জন প্রার্থীর মধ্যে সবচেয়ে ধনী প্রার্থী হলেন, পটাশপুর বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী অম্বুজাখ্য মাইতি। তাঁর সম্পদের পরিমাণ ১০.২৭ কোটি টাকা। সবচেয়ে কম সম্পদের প্রার্থী হলেন পুরুলিয়ার মানবাজার বিধানসভার এসইউসিআই প্রার্থী স্বপন মুর্মু। তাঁর সম্পদের পরিমাণ দেখানো হয়েছে মাত্র ৫০০ টাকা। এছাড়াও পটাশপুর কেন্দ্রের সিপিআই প্রার্থী সৈকত গিরির সম্পদের পরিমাণ দেখানো হয়েছে মাত্র ২ হাজার টাকা। এছাড়াও মোট ১৮ জন বিধায়ক এবারের নির্বাচনে পুনরায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল তৃণমূল কংগ্রেসের রানিবাঁধ কেন্দ্রের প্রার্থী জ্যোৎস্না মান্ডির সম্পদ বৃদ্ধির পরিমাণ। বিগত নির্বাচনে হলফনামায় তিনি তাঁর সম্পদের পরিমাণ দেখিয়েছিলেন ১,৯৬,৬৩৩ টাকা। তবে, এবারের নির্বাচনের হলফনামায় সম্পত্তির পরিমাণ দেখিয়েছেন ৪১,০১,১৪৪ টাকা। অর্থাৎ বিগত ৫ বছরে তাঁর সম্পদের পরিমাণ বেড়েছে ১৯৮৫.৬৮ শতাংশ। অপরদিকে, এবারের সবচেয়ে বেশি দেনাদার প্রার্থী হলেন পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী স্বদেশ রঞ্জন নায়েক। যার দেনার পরিমাণ দেখানো হয়েছে ২.২৯ কোটি টাকা। সবচেয়ে বেশি আয় নির্বাচনি হলফনামায় দাখিল করেছেন ভগবানপুর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অর্ধেন্দু মাইতি। যিনি তাঁর হলফনামায় আয় দেখিয়েছেন ১.০৮ কোটি টাকা। পাশাপাশি ৯৬ জন প্রার্থী পঞ্চম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। ৯২ জন স্নাতক বা স্নাতকোত্তর পাশ। আর ৩ জন হলেন ডিপ্লোমা ডিগ্রিধারী।

- Advertisement -

ওয়েস্ট বেঙ্গল ইলেকশন ওয়াচের তথ্য অনুসারে ১৯১ জন প্রার্থীর মধ্যে ৪৮ জনের বিরুদ্ধে রয়েছে ফৌজদারি মামলা। যার মধ্যে সিপিএমের ১০ জন, বিজেপির ১২ জন, তৃণমূলের ১০ জন, কংগ্রেসের ২ জন, এসইউসিআই-এর ৩ জন ও বিএসপির ১ জন। গুরুতর ফৌজদারি মামলা রয়েছে ৪২ জনের বিরুদ্ধে। এছাড়া ১২ জন প্রার্থী তাঁদের হলফনামায় ঘোষণা করেছেন যে তাঁদের বিরুদ্ধে মহিলা অপরাধ সম্পর্কিত মামলা রয়েছে। এদের মধ্যে একজনের বিরুদ্ধে আবার ধর্ষণের মতো গুরুতর অপরাধের মামলা রয়েছে। খুনের মামলা আছে বলে জানিয়েছেন ৮ জন প্রার্থী। এছাড়াও হত্যার চেষ্টা সম্পর্কিত মামলার সঙ্গে যুক্ত বলে জানিয়েছেন ১৯ জন প্রার্থী। ৩০টি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে ৭টি কেন্দ্রে লাল সর্তকতা জারি করার আবেদন জানানো হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ ইলেকশন ওয়াচের তরফে।