লটারি ব্যবসায়ীকে খুনের চেষ্টার অভিযোগ, গ্রেপ্তার ২

179

রায়গঞ্জ: এক লটারি ব্যবসায়ীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী দোকানদারের বিরুদ্ধে। অভিযোগের ভিত্তিতে দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছেন লটারি ব্যবসায়ী। মঙ্গলবার গভীর রাতে রায়গঞ্জ থানার কর্ণজোড়া ফাঁড়ির অন্তর্গত বোগ্রাম এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতদের নাম পিন্টু রামকানু ও বিশাল রামকানু। জখম যুবকের নাম রানা রায়(২৮)। কর্ণজোড়া ছত্রপুরের বাসিন্দা। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তারপর তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় বুধবার সকালে শিলিগুড়ির উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকাল রাতে মদ্যপ অভিযুক্ত পিন্টু ও তার ভাইপো বিশাল ওই লটারি ব্যবসায়ীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এরপর শুরু হয় হাতাহাতি। দোকানে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে ব্যবসায়ীর মাথার মধ্যে কোপ মারে। সেখানে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ রক্তাক্ত লটারি বিক্রেতাকে উদ্ধার করে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজে নিয়ে যায়। পিন্টুর অভিযোগ, ওই লটারি ব্যবসায়ীর কাছ থেকে লটারির টিকিট কেটে ৩০ হাজার টাকা পাবে। সেই টাকা না দেওয়ায় যাবতীয় গণ্ডগোলের সূত্রপাত।

- Advertisement -

এই ঘটনায় কর্ণজোড়া পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে দু’জনকে গ্রেপ্তারের পাশাপাশি এদিন রায়গঞ্জ জেলা আদালতে তোলা হলে অভিযুক্তদের ১৪ দিনের জেল হেপাজতের নির্দেশ দেন। অভিযুক্ত পিন্টু ও বিশালের পরিবার থেকে জখম লটারি ব্যবসায়ীর চিকিৎসার জন্য যাবতীয় খরচ বহন করছে। রায়গঞ্জ থানার আইসি কৃষ্ণেন্দু দাস বলেন, ‘ঘটনার তদন্ত চলছে।’