বিহার থেকে ছিনতাই হওয়া পিকআপ ভ্যান সহ ধৃত ২

167

আসানসোল: বিহারে ছিনতাই হয়ে যাওয়া পিকআপ ভ্যান উদ্ধার হল এরাজ্যে। আসানসোলের সালানপুর থানার কল্যাণেশ্বরী এলাকায় বিহারের পুলিশ এসে সালানপুর থানার পুলিশের চেষ্টায় ছিনতাই হয়ে যাওয়া সেই পিকআপ ভ্যানটি উদ্ধার করে রবিবার। এই ছিনতাই কাণ্ডে যুক্ত সন্দেহে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধৃতরা হল বিহারের বেগুসরাইয়ের আনমোল কুমার ও গিরিডির জামুয়ার প্রিন্স কুমার সাউ। তার মধ্যে আনমোল পেশায় চালক ও প্রিন্স ট্রান্সপোর্ট মালিক। সোমবার ধৃতদের আসানসোল আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদের জামিন নাকচ করে ৫ দিনের রিমান্ডের নির্দেশ দেন। বিহার পুলিশ তাদের ট্রানজিট রিমান্ডে বিহার নিয়ে যাবে বলে জানা গিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২৮ ডিসেম্বর বিহারের বেগুসরাই থেকে একটি পিকআপ ভ্যান ছিনতাই করে দুই বাইকে থাকা ৬ জনের দুষ্কৃতী দল। চালকের মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে মারধর করে সেই গাড়ি নিয়ে চম্পট দেয় তারা। এরপর সেই গাড়ির চালক সতীশ কুমার বালিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। শুধু গাড়ি ছিনতাই নয়, চালকের মোবাইল ফোন ও তার সঙ্গে থাকা ২৩ হাজার টাকা ছিনতাই করে দুষ্কৃতীরা।

- Advertisement -

গাড়িচালক সতীশ কুমার বলেন, ‘পশ্চিম বাংলার আসানসোলের কল্যাণেশ্বরী এলাকার এক দোকানদার গাড়িতে থাকা ফোন নম্বর দেখে আমার মোবাইলে ফোন করেন। তিনি আমাকে জানান, তাঁর দোকানের সামনে কয়েক ঘণ্টা ধরে ভ্যানটি পার্কিং করা রয়েছে। যেন তিনি গাড়িটি সরিয়ে নেন।’ সতীশ কুমার বলেন, ‘কোন জায়গায় গাড়ি দাঁড়িয়ে আছে। কোন রাজ্য বা কোন থানা এলাকা ওই দোকানদারের কাছ থেকে সমস্ত তথ্য নিয়ে বিহার পুলিশকে জানাই। সেইমতো বিহার পুলিশ রবিবার সকালে কল্যাণেশ্বরী এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে বিফল হয়। কারণ ততক্ষণে সেই গাড়িটি সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে গিয়েছিল ছিনতাইকারীরা। এরপর বিহার পুলিশ এই ঘটনার কথা জানায় আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের সালানপুর থানার পুলিশকে। পরে কল্যাণেশ্বরীর এক লজের সামনে দেখতে পাওয়া যায় সেই গাড়িটিকে। গাড়ি সহ চালক আনমোল কুমারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর আনমোলের কথার সূত্র ধরে পুলিশ কল্যাণেশ্বরীর একটি ট্রান্সপোর্টের মালিক প্রিন্স কুমার সাউকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ জানতে পারে, বিহারের এই গাড়িটিকে এখানে ভাড়ায় খাটানো হচ্ছিল।

বিহার পুলিশের বালিয়া থানার এএসআই সুরেন্দ্র সিং জানান, দুষ্কৃতীদের রিমান্ডে নিয়ে তাঁরা বিহারে যাবেন ও জিজ্ঞাসাবাদ করবেন। আন্তরাজ্য গাড়ি চুরির আরও তথ্য মিলতে পারে। এদের জেরা করে চক্রের অন্য লোকেরা ধরা পড়তে পারে।

আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশের ডিসিপি (পশ্চিম) বিশ্বজিৎ মাহাতো বলেন, ‘বিহার থেকে ছিনতাই হওয়া গাড়িটি সালানপুর থানা এলাকা থেকে পাওয়া যায়। দুজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে।’