১৩ লক্ষ টাকার নেশার ট্যাবলেট উদ্ধার, গ্রেপ্তার দুই

ঘোকসাডাঙ্গা: গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পাচারের আগেই প্রচুর পরিমাণ নেশার ট্যাবলেট উদ্ধার করল ঘোকসাডাঙ্গা থানার পুলিশ। পাচার কাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, উদ্ধার হওয়া নেশার ট্যাবলেটগুলির বাজারমূল্য প্রায় ১৩ লক্ষ টাকা। ধৃতদের বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ঘোকসাডাঙ্গা থানার ওসি দেবাশিষ রায়ের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সাদা পোশাকে পুন্ডিবাড়ি-ফালাকাটা ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে ওত পেতে বসে ছিল। কোচবিহার চা বাগান সংলগ্ন এলাকায় নাকা পয়েন্টে নাকা চেকিং শুরু করা হয়। একটি লাল রঙের ছোট গাড়ি কোচবিহার থেকে ফালাকাটা অভিমুখে যাচ্ছিল।

- Advertisement -

পুলিশ গাড়িটির পিছু ধাওয়া শুরু করে। গাড়িটিকে নাকা পয়েন্টে আটক করে তল্লাশি শুরু করে। গাড়িটিতে তল্লাশি চালিয়ে নীল রঙের ২২০টি প্যাকেট উদ্ধার হয়। যার মধ্যে থেকে মোট ৪৪ হাজার নেশার ট্যাবলেট উদ্ধার হয়। গাড়ির চালক সহ দুজনকে আটক ও পরে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতরা হল পিন্টু দাস (৩২) ও তারকেশ্বর মহন্ত (৩৬)। তাঁদের বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার বরানগর এলাকায়।

ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পেরেছে, ধৃতরা ট্যাবলেটগুলি কোচবিহারের দিনহাটা থেকে কলকাতায় পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাচ্ছিল। উদ্ধার হওয়া নেশার ট্যাবলেটের বাজারমূল্য প্রায় ১৩ লক্ষ টাকা।ধৃতদের বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এই কাণ্ডে আরও কারা কারা জড়িত আছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।