ডাককর্মী খুনে দোষী সাব্যস্ত ২, আগামীকাল সাজা ঘোষণা

121

আসানসোল: ৯ বছর আগে হওয়া এক পোস্ট অফিস কর্মী খুনের ঘটনায় আসানসোল আদালতে দোষী সাব্যস্ত হল ২ জন। মঙ্গলবার আসানসোল আদালতের অতিরিক্ত দায়রা বিচারক(৪) সাকেত ঝাঁ এই খুনের মামলায় ২ জনকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন। আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার এই মামলায় সাজা ঘোষণা করবেন বিচারক। ধৃতদের নাম আসানসোল উত্তর থানার রেলপারের রামকৃষ্ণ ডাঙ্গালের হরি পাসোয়ান ও আসানসোল দক্ষিণ থানার উষাগ্রামের গোয়ালা পাড়ার অভয় গোস্বামী।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আসানসোল উত্তর থানার রেলপারের রামকৃষ্ণ ডাঙ্গালের বাসিন্দা সুনীল যাদব বারাবনি থানার কেলেজোড়া গ্রামীণ ডাক সেবক পদে কর্মরত ছিলেন। ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল সকালে স্কুটার চালিয়ে বাড়ি থেকে কর্মস্থল বারাবনিত যাচ্ছিলেন। আসানসোলের কাল্লা রোড সংলগ্ন পড়িরা প্রাথমিক স্কুলের কাছে সুনীলের রাস্তা আটকায় মোটরবাইকে করে আসা মুখ ঢাকা দুজন। সুনীল যাদব কিছু বুঝে উঠার আগেই তাকে লক্ষ্য করে ওই দুজন খুব কাছ থেকে গুলি চালায়। গুলিবিদ্ধ হয়ে সুনীল যাদব রাস্তায় লুটিয়ে পড়তেই ওই দুজন মোটরবাইক করে বেপাত্তা হয়ে যায়। এলাকার বাসিন্দারা সুনীলকে আসানসোলে জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে মৃত সুনীলের বাবা শিউজি যাদব গোটা ঘটনার কথা জানিয়ে আসানসোল উত্তর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগে ছেলেকে খুন করার জন্য অভিযুক্ত হিসাবে শিউজি যাদব হরি পাসোয়ান ও অভয় গোস্বামীর নাম দেন। পুলিশ একটি খুনের মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করে। ঘটনার চারদিন পরে পুলিশ হরি ও অভয়কে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ প্রাথমিক তদন্তের পরে জানতে পেরেছিল, রামকৃষ্ণ ডাঙ্গালে হরি পাসোয়ান ও অভয় গোস্বামীর রাস্তায় প্রকাশ্যে মদ্যপানের বিরোধিতা করেছিল সুনীল যাদব। এরজন্য সুনীলকে খুনের হুমকিও দেওয়া হয়েছিল।

- Advertisement -

এই মামলার সরকারি আইনজীবী তপন মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘এতদিন ধরে চলা মামলায় মোট ১৮ জন তাদের সাক্ষদান করেছেন। পুলিশের তরফে ঠিক সময়ে চার্জশিট ও অন্যান্য তথ্য প্রমাণ আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে। ধৃতরা আসানসোল জেলেই রয়েছে। সবশেষে দুজনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে।