দুই পরিবারের বিবাদে চলল গুলি, জখম যুবক, গ্রেপ্তার ৫

83

বর্ধমান: দুই পরিবারের বিবাদের জেরে চলা গুলিতে এক বাইক আরোহী যুবকের জখম হওয়ার ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হল ৫ জনকে। রবিবার ঘটনাটি ঘটে পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী থানার পাটুলির নতুনপাড়া এলাকায়। জখম যুবকের নাম অমর ঘোষ (২১)। তিনি বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ধৃতদের মধ্যে তিনজন মহিলা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতরা হল নন্দ ঘোষ, রাখাল ঘোষ, ফুলমনি ঘোষ, বুজি ঘোষ ও সুজাতা ঘোষ। ধৃতরা পূর্বস্থলীর পাটুলির নতুনপাড়া, বালিডাঙ্গা ও ঝোয়াডাঙ্গা এলাকার বাসিন্দা।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পাটুলির নতুনপাড়ায় পাশাপাশি থাকেন বানেশ্বর ঘোষ ও নিত্যানন্দ ঘোষের পরিবার। গতকাল নিত্যানন্দ ঘোষ তাঁর বাড়ির নতুন প্লাস্টার হওয়া দেওয়ালের গোড়ার মাটি সরিয়ে জায়গা পরিষ্কার করছিলেন। সেটা দেখে পাশের বাড়ির বানেশ্বর ঘোষের স্ত্রী প্রতিবাদ করেন। তা নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে তুমুল অশান্তি বেধে যায়। অভিযোগ, সেইসময় বানেশ্বর ঘোষের বাইরে থেকে ডেকে আনা কয়েকজন মিলে নিত্যানন্দ ঘোষ ও তাঁর পরিবারের দিকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। সেই গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে পাশে বাইক চালিয়ে যাওয়া এলাকার এক যুবকের ডান হাতের কনুইয়ের কাছে লাগে। জখম অবস্থায় ওই যুবককে উদ্ধার করে প্রথমে কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে তাঁকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।যুবকের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে পূর্বস্থলী থানার পুলিশ তদন্তে নেমে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে। অস্ত্র আইন সহ ফৌজদারি দন্ডবিধির একাধিক ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ ধৃতদের সোমবার কালনা মহকুমা আদালতে পেশ করে। তদন্তের প্রয়োজনে পুলিশ নন্দ ঘোষ ও রাখাল ঘোষকে নিজেদের হেপাজতে নিতে চেয়ে আদালতে আবেদন জানান। বিচারক ধৃত এই দু’জনকে দু’দিনের পুলিশ হেপাজত ও বাকি তিন ধৃত মহিলাকে জেল হেপাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।

- Advertisement -