অনন্তনাগ, ২৫ জুলাইঃ সকাল থেকেই উপত্যকায় সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াই শুরু। ‘গো অলআউট’-এর নির্দেশ রয়েছে সেনার কাছে। সেই নির্দেশ মেনেই দুই জেহাদিকে মারল সেনা। উদ্ধার করা হয়েছে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র। এলাকাজুড়ে এখনও চলছে তল্লাশি অভিযান।

সেনা সূত্রে খবর, অনন্তনাগ জেলায় এদিন ভোর ৪টে থেকে শুরু হয়েছে গুলির লড়াই। চলছে গ্রেনেড হামলাও। গোপন সূত্রে লালচক এলাকায় জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার খবর পায় সেনাবাহিনী। ঘন জনবসতিপূর্ণ ওই এলাকার একটি বাড়িতে ঘাঁটি গেড়েছিল জঙ্গিরা। জঙ্গিদমনে সেনা, সিআরপিএফ ও কাশ্মীর পুলিশের একটি যৌথবাহিনী অভিযান শুরু করে। ঘিরে ফেলা হয় সমস্ত এলাকা। জঙ্গিদের পালানোর পথ বন্ধ করতে রাস্তায় বসানো হয় নাকা চেকিং। পাথর নিক্ষেপকারীদের জমায়েতে বাধা দিতে, বন্ধ করে দেওয়া হয় ইন্টারনেট পরিসেবাও। জওয়ানদের উপস্থিতির কথা জানতে পেরে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। পালটা হামলা চালায় সেনা। গুলির লড়াইয়ে মৃত্যু হয় দুই জঙ্গির। তবে পালাতে সক্ষম হয় বাকিরা। এখনও পর্যন্ত মৃত জঙ্গিদের পরিচয় জানা যায়নি।

গোটা অনন্তনাগ জুড়ে জারি হয়েছে হাই অ্যালার্ট। বন্ধ ট্রেন চলাচল। জাতীয় সড়কও বন্ধ করে রাখা হয়েছে। শ্রীনগর থেকে বানিহাল পর্যন্ট ট্রেন চলাচল বন্ধ।