পূর্ব কলকাতার ফুল বাগানে অভিজাত ফ্ল্যাটে জোড়া খুন

275
প্রতীকী ছবি।

কলকাতা: সোমবার পূর্ব কলকাতার ফুলবাগান থানার অন্তর্গত হরিয়ানা ভবনের পাশের একটি অভিজাত আবাসনে খুন হন দু’জন। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সেখানে এলাকায় উত্তেজনা ও চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘরের দরজা ভেঙে এক প্রৌঢ়া ও এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত যুবকের নাম অমিত আগরওয়াল। আর মৃতা তাঁরই শাশুড়ি। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, অমিত তাঁর শাশুড়িকে খুন করে নিজে আত্মঘাতী হয়েছেন। মৃতের শ্বশুর পুলিশকে জানান, অমিত যখন তাঁদের বাড়িতে আসেন, তখন তিনি ও তাঁর স্ত্রী দু’জনেই একই ঘরে ছিলেন। অমিত তাঁদের দু’জনকে মারতে চাইলে তিনি জানলা টপকে কোনওমতে পালাতে সমর্থ হন। এরপরই অমিত পকেট থেকে রিভলবার বের করে শাশুড়িকে গুলি করেন। তিনি লুটিয়ে পড়লে অমিত নিজের শরীরে গুলি করে আত্মহত্যা করেন দাবি তাঁর শ্বশুরের। তবে ঘটনার আসল রহস্য জানতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

- Advertisement -

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অমিতের স্ত্রী তাঁর ছেলেকে নিয়ে বেঙ্গালুরুতে থাকেন। আর অমিত থাকেন হুগলির উত্তরপাড়ায়। মাঝে মধ্যেই শ্বশুরবাড়িতে এসে তিনি শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে ঝগড়া করতেন বলে অভিযোগ। এদিন দুপুরে হঠাৎ করে তিনি ওই বাড়িতে এসে শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে ঝগড়া শুরু করেন। ঝগড়ার সময় হঠাৎই অমিত পকেট থেকে একটি রিভলবার বের করে তাঁর শাশুড়িকে তাক করেন। শ্বশুর কোনওমতে জানালা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় প্রাণে বেঁচে যান। তবে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কোনও কিছুই সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশের অনুমান, সম্পত্তি নিয়ে অমিতের সঙ্গে শ্বশুর-শাশুড়ির ঝগড়া হত। পুলিশ মৃতদেহ দুটি ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের দিয়ে বাড়ির প্রতিটি অংশ খুঁটিয়ে পরীক্ষা করা হবে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।