গড়িয়াহাটের ঘটনায় আটক আরও ২

97
প্রতীকী

কলকাতা: গড়িয়াহাটে জোড়া খুনের ঘটনার তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য পাচ্ছেন তদন্তকারীরা। মূল অভিযুক্ত মিঠু হালদারকে জেরা করে বেশ কয়েকজনের নাম জানতে পেরেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে বাপি দাস ও জাহির গাজি নামে দু’জনকে পাথরপ্রতিমা থেকে আটক করা হয়। যদিও তাঁরা আদৌ এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত কিনা, সে বিষয়ে নিশ্চিতভাবে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। পুলিশের অনুমান, ঘটনায় অভিযুক্ত ভিকি হালদারের সঙ্গী ছিল তাঁরা। এখনও পলাতক মূল অভিযুক্ত মিঠু হালদারের বড় ছেলে ভিকি।

প্রসঙ্গত, গড়িয়াহাটে কর্পোরেট কর্তা সুবীর চাকি এবং তাঁর চালক রবীন মণ্ডলের মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয় পরিচারিকা মিঠু হালদারকে। তদন্তকারীদের জেরার মুখে মিঠু জানিয়েছে, খুনের দিন কাঁকুলিয়া রোডের বাড়িতে না থাকলেও, আশেপাশেই ছিল সে। ফলে তদন্ত নয়া মোড় আসে। এদিকে বুধবার মিঠু হালদারের বাড়িতে হানা দিয়ে রক্তমাখা পোশাক উদ্ধার করেন গোয়েন্দারা। খুনের পিছনে মিঠু হালদারের ছেলে ভিকি রয়েছে বলে অনুমান তদন্তকারীদের। গোয়েন্দাদের ধারণা মিঠু ও তাঁর বড় ছেলে মিলে পরিকল্পনা করেই সম্ভবত খুন করেছে সুবীরবাবুকে। তদন্তকারীরা ভিকি ছাড়াও ঘটনায় যুক্ত আরও তিনজনের খোঁজ করছেন।

- Advertisement -