ভারতে করোনার নতুন স্ট্রেনে আক্রান্ত বেড়ে ২০, বাড়ছে উদ্বেগ

415
প্রতীকী ছবি।

নয়াদিল্লি: ব্রিটেন থেকে আসা ভারতে এখনও পর্যন্ত মোট ২০ জনের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাসের নতুন স্ট্রেন। এর মধ্যে উত্তরপ্রদেশের মেরটের দু’বছরের এক শিশুও রয়েছে। ইতিমধ্যে তার শরীরে এই নতুন স্ট্রেন ধরা পড়েছে। সম্প্রতি পরিবারের সঙ্গে ব্রিটেন থেকে ফিরেছিল শিশুটি। দেশে এই প্রথম কোনও শিশুর শরীরে মিলল করোনার নতুন স্ট্রেন। যা নিয়ে নতুন করে বাড়ছে উদ্বেগ। জানা গিয়েছে, ওই শিশুর মা-বাবাও করোনায় আক্রান্ত। তবে তাঁদের শরীরে নতুন স্ট্রেন রয়েছে কিনা, সেই রিপোর্ট এখনও মেলেনি।

ব্রিটেন থেকে ফেরার পর ওই পরিবারের মোট চারজনের করোনা পরীক্ষা করা হলে প্রত্যেকের রিপোর্টই পজিটিভ আসে। নতুন স্ট্রেনের বিষয়টি নিশ্চিত করতে তাঁদের নমুনা জিনোম সিকোয়েন্স করানোর জন্য দিল্লি পাঠানো হয়। চারটি নমুনার মধ্যে শিশুটির শরীরে মেলে নতুন স্ট্রেন। এরপরই প্রশাসনের তরফে আক্রান্ত পরিবারের এলাকা সিল করে দেওয়া হয়। সেখানে নজরদারিও চালাচ্ছে প্রশাসন।

- Advertisement -

মঙ্গলবার পর্যন্ত ভারতে নতুন স্ট্রেনে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬। ব্রিটেন ফেরত এই আক্রান্তদের মধ্যে একজন আবার ট্রেনে করে দিল্লি থেকে অন্ধ্রপ্রদেশ যান। আক্রান্তদের মধ্যে তিনজন ভর্তি রয়েছেন বেঙ্গালুরুর নিমহ্যান্সে, দু’জন হায়দরাবাদের সেন্টার ফর সেলুলার অ্যান্ড মলিকিউলার বায়োলজিতে, একজন পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজিতে। আক্রান্তদের আইসোলেশনে রাখার পাশাপাশি তাঁদের পরিজনদের কোয়ারান্টিনে পাঠানো হয়েছে।

নতুন স্ট্রেন ভারতে যেভাবে ছড়িয়ে পড়ছে তাতে উদ্বিগ্ন কেন্দ্র। ৩১ ডিসেম্বরের পরেও ব্রিটেনের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ রাখার কথা ভাবা হচ্ছে। এখনও পর্যন্ত ২০ জনের শরীরে ওই স্ট্রেনের সংক্রমণ মিললেও কোনও ঝুঁকি না নিয়ে দেশে প্রতিদিন নতুন করোনা আক্রান্তদের অন্তত পাঁচ শতাংশের নমুনার জিনোম সিকোয়েন্স করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। পাশাপাশি, ব্রিটেনের সব বিমান বন্ধ করার আগে যাঁরা ব্রিটেন থেকে ভারতে এসেছেন, তাঁদের চিহ্নিত করার চেষ্টা করছে কেন্দ্র।

করোনার এই নতুন স্ট্রেন ৭০ শতাংশ বেশি সংক্রামক বলে মনে করছেন বিশেজ্ঞরা। তবে করোনার নতুন স্ট্রেনে ভ্যাকসিন কাজ করবে না, এমন প্রমাণ এখনও পর্যন্ত মেলেনি বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক।