২০ মাসের শিশু ভারতের সর্বকনিষ্ঠ অঙ্গ দাতা, প্রাণ বাঁচাল ৫ জনের

293
প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: তার বয়স মাত্র ২০ মাস। আর এই বয়েসেই সে নিজের মৃত্যুর পরে তার অঙ্গ দিয়ে প্রাণ বাঁচাল ৫ মৃত্যুপথযাত্রী শিশুর। দিল্লির রোহিনী এলাকার বাসিন্দা আশিস কুমার ও তাঁর স্ত্রী ববিতার সন্তান ধনীষ্ঠা। ৮ জানুয়ারি খেলতে খেলতে তার নিজের বাড়ির বারান্দা থেকে নীচে পড়ে যায় সে। ততক্ষণাৎ তাকে ভর্তি করা হয় দিল্লির শ্রী গঙ্গারাম হাসপাতালে। আর ১১ জানুয়ারি তার ব্রন ডেইথ হয় বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

কিন্তু তারপরেও চিকিৎসকেরা জানান মস্তিষ্কের মৃত্যু হলেও শিশুর দেহের অন্য সব প্রত্যঙ্গই কাজ করছিল। এরই মধ্যে আশিস ও তাঁর স্ত্রী দেখতে পান হাসপাতালে এমন কিছু অসহায় বাবা-মা রয়েছেন যাদের শিশুদের অঙ্গপ্রতিস্থাপন হচ্ছে না। সেই সময় মেয়ে হারানোর শোক সামলে তাকে অনেকের মধ্যে বাঁচিয়ে রাখার উদ্দেশ্যেই তার অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নেন ধনীষ্ঠার বাবা-মা। এরপরেই তাঁর হৃদপিণ্ড, লিভার, দু’টি কিডনি, কর্নিয়া দান করা হয় সেই সকল শিশুদের। যদিও তার কিডনি দান করা হয়েছে এক প্রপ্তবয়ষ্ককে।

- Advertisement -

হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডঃ ডিএস রানা জানিয়েছেন, পরিবারের এই মহৎ কাজ সত্যিই প্রশংসনীয় এবং অন্যকেও অনুপ্রাণিত করা উচিত। প্রতি মিলিয়নে ০.২৬ শতাংশ অঙ্গদান হয়। প্রতি বছর গড়ে প্রায় ৫ লক্ষ ভারতীয় অঙ্গ না পেয়ে বা অঙ্গের অভাবে মারা যান।