‘তাউকতাই’-এর তাণ্ডবে প্রাণহানি অন্তত ২১ জনের

105
ছবি : সংগৃহীত

নয়াদিল্লি: ঘূর্ণিঝড়ের ‘তাউকতাই’ স্থলভাগে প্রবেশ করে শক্তি হারাতে শুরু করলেও এখনও প্রবল ঝড়ের দাপটে কাঁপছে গুজরাত থেকে মহারাষ্ট্র। ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে এখনও পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে ৬ জন এবং কেরলে ৭ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। কর্ণাটকেও ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন।

সোমবার রাতেই গুজরাত উপকূলে ঘণ্টায় প্রায় ১৫০ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড়। এর প্রভাবে প্রচুর বাড়ি, গাছ ভেঙে পড়ে। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। গুজরাতের উপকূল এলাকা থেকে ইতিমধ্যেই প্রায় ২ লক্ষ মানুষকে নিরাপদ এলাকায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। গতকালই গোয়া, মহারাষ্ট্র, গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মহারাষ্ট্রে ৬ জনের মৃত্যু ছাড়াও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। কর্ণাটকে ৭ জেলার অন্তত ১২১টি গ্রাম ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কেরলে প্রায় দেড় হাজার বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত।

- Advertisement -

গতকাল ২টি বার্জে অন্তত ৪১০ জন আটকে পড়েন বলে নৌ সেনা বার্তা পায়। মাঝ সমুদ্রে আটকে পড়া একাধিক বার্জ থেকে সেখানকার কর্মীদের উদ্ধার করতে শুরু করেছে ভরতীয় নৌ সেনার জাহাজ। ইতিমধ্যেই ১৪৬ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।