বালুরঘাট, ১৯ মার্চঃ বাজেয়াপ্ত হল প্রায় ২৪ লক্ষ টাকা। বালুরঘাটের কুমারগঞ্জ-বালুরঘাট রাজ্য সড়কে বরাহার মোড়ের কাছে পুলিশের নাকা চেকিংয়ের সময় বাজেয়াপ্ত করা হয় ওই টাকা। আটক করা হয় দুই ব্যক্তিকে। যদিও উদ্ধার হওয়া টাকা লটারির প্রাইজ মানি বলে দাবি করে ওই দুই ব্যক্তি।

সোমবার বিকেলে কুমারগঞ্জ থানার পুলিশ নাকা চেকিং করছিল। সেসময় ওই দুই ব্যক্তির কাছে থাকা একটি লটারির টিকিটের ব্যাগ থেকে বাজেয়াপ্ত করে ২৩ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা।

কুমারগঞ্জের গোপালগঞ্জ বালুপাড়া এলাকার বাসিন্দা সুকুমার সরকার। পেশায় লটারির টিকিট বিক্রেতা। রবিবার বিকেলে তার বাড়িতে যায় স্থানীয় দুই লটারি বিক্রেতা জীবন সাহা ও প্রতীক সাহা। সুকুমারের কাছ থেকে যে সমস্ত লটারির টিকিটগুলি বিক্রি হয়নি সেগুলিই ৬০০ টাকা দিয়ে কিনে নেয় ওই দুই ব্যক্তি। উল্লেখ্য, ইন্টারনেটের মাধ্যমে আগেই ওই দুই ব্যক্তি নাকি জানতে পেরেছিল যে ওই সিরিজের একটি লটারির টিকিটে প্রায় ৩০ লাখ টাকা প্রাইজ মানি লেগেছে। বিষয়টা বুঝতে পেরেছিল সুকুমারও। তিনি ওই দু’জনের কাছে প্রাইজ মানির একাংশ দাবিও করেছিল। বিষয়টা এলাকায় জানাজানিও হয়ে যায়। কিন্তু অভিযুক্ত ওই দুই ব্যক্তি গোপনে এক স্থানীয় চোরাকারবারীর কাছে ওই লটারির টিকিটটি প্রায় ২৩ লাখ ৮০ হাজার টাকায় বিক্রি করে। সেই টাকাই ব্যাগের ভেতর রেখে ওপরে লটারির টিকিট দিয়ে সাজিয়ে ওই ব্যাগটি নিয়ে বাইকে করে বালুরঘাটের দিকে যাচ্ছিল তারা। পরে নাকা চেকিংয়ে ব্যাগটি তল্লাশি করে পুলিশ ওই টাকা উদ্ধার করে।