পৃথক দুটি খুনের ঘটনায় ধৃত ৩

123

ফাঁসিদেওয়া: স্ত্রী’কে খুনের অভিযোগে স্বামীকে গ্রেপ্তার করল ফাঁসিদেওয়া থানার পুলিশ। বুধবার ফাঁসিদেওয়া ব্লকের রাঙ্গাপানী সংলগ্ন নিমতলা শ্মশানঘাটে ফাঁসিদেওয়া ব্লকের জালাস নিজামতারা গ্রাম পঞ্চায়েতের বনিকজোতের বাসিন্দা বীনা হেমব্রম নামে বছর চল্লিশের এক মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার হয়। এরপর ওই মহিলাকে শ্বাসরুদ্ধ করে খুনের অভিযোগ ওঠে। ফাঁসিদেওয়া পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠায়। একইসঙ্গে জিজ্ঞাসাবাদের মহিলার স্বামী রাজেশ হেমব্রমকে পুলিশ আটক করে। রাজেশ পুলিশের কাছে খুনের বিষয়টি স্বীকার করে। এদিন খুনের অভিযোগে সুনির্দিষ্ট মামলা রুজু করে তাকে শিলিগুড়ি মহকুমা আদালতে তোলা হয়। তদন্তকারী অফিসার বিচারকের কাছে পুলিশি হেপাজতের আর্জি জানিয়েছেন। রাজেশ কেন স্ত্রী’কে খুন করল তা নিয়ে তদন্ত করা হবে।

একইসঙ্গে ১২ ফেব্রুয়ারি শিলিগুড়ির বাসিন্দা তথা ব্যবসায়ী উমেশ শাহকে নৃশংসভাবে খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ মঙ্গলবার রাতে ২ জনকে গ্রেপ্তার করে। এদিন ওই খুনের ঘটনায় ধৃতদেরও পুলিশ হেপাজতের আর্জি জানিয়ে শিলিগুড়ি মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে৷ ব্যবসায়ী খুনের ঘটনায় ধৃত মহম্মদ রসুল (৩৫), মহম্মদ মমিরুল (৪৩) উভয়েই ফাঁসিদেওয়ার হেচারী মোড়ের বাসিন্দা বলে পুলিশ জানিয়েছে। ব্যবসায়ী খুনে ঘটনার মূল অভিযুক্ত মহম্মদ ডিমেল এবং সহযোগী মহম্মদ তামিরুল নামে নামে বাকি ২ অভিযুক্তরা পলাতক। পুলিশ তাদের খোঁজে তল্লাশি চালিয়ে যাচ্ছে। খুব শীঘ্রই তারা গ্রেপ্তার হবে বলে পুলিশ আশা প্রকাশ করেছে৷ পাশাপাশি, ব্যবসায়ী খুনে বাকি অভিযুক্তদের ধরতে এবং সঠিক রহস্য উন্মোচনের জন্য পুলিশ তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে।

- Advertisement -