বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ৩ পঞ্চায়েত সদস্য, ক্ষমতার হস্তান্তর সময়ের অপেক্ষা

119

গাজোল: বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন তিন গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য সহ এক নির্দল সদস্য। এরই জেরে এবার রানীগঞ্জ-১ গ্রাম পঞ্চায়েত হাত ছাড়া হতে বসেছে গেরুয়া শিবিরের। যদিও বিজেপি নেতৃত্বরা বিষয়টিকে খুব একটা গুরুত্ব দিতে নারাজ। এবিষয়ে স্থানীয় বিজেপি বিধায়কের বক্তব্য, নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য তাঁরা দলবদল করেছেন। এতে সংগঠনের কোনও ক্ষতি হবে না।

গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে রানীগঞ্জ-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের ১০টি আসনের মধ্যে ৭টি আসন গেরুয়া শিবিরের দখলে ছিল। বাকি তিনটির মধ্যে ২টি আসন ছিল তৃণমূলের হাতে এবং একটি আসন ছিল নির্দলের দখলে। স্বাভাবিকভাবেই পঞ্চায়েত দখল করে বিজেপি। যদিও গতকাল রাতে গাজোল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়ে বিজেপির সংশ্রব ছেড়ে তিন সদস্য যোগ দেন তৃণমূল শিবিরে। একইসঙ্গে একমাত্র নির্দল সদস্যও তৃণমূলের পতাকা হাতে তুলে নেন। ঘটনায়, সংখ্যা গরিষ্ঠতা হারাল গেরুয়া শিবির। অন্যদিকে, সংখ্য়ালঘু থেকে সংখ্যা গরিষ্ঠের তকমা পেল তৃণমূল শিবির। বর্তমানে তৃণমূলের হাতে ৬টি আসন। স্বাভাবিকভাবেই রাণিগঞ্জ-১ গ্রাম পঞ্চায়েতে ক্ষমতার পালা বদল এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

- Advertisement -

গাজোল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি মানিক প্রসাদ জানান, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে ভাঁওতা দিয়ে একাধিক গ্রাম পঞ্চায়েত দখল করেছিল বিজেপি। কিন্তু কয়েক বছর কাটতে না কাটতেই মানুষ বিজেপির ভাঁওতাবাজি ধরে ফেলেছে। শুধু সাধারণ মানুষই নয়, বিজেপির নির্বাচিত সদস্যরাও সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করতে পারছেন না। তাই বিজেপির নির্বাচিত সদস্যরা তৃণমূলে যোগদান করছেন।

সদ্য তৃণমূলে যোগদানকারী পঞ্চায়েত সদস্যরা জানান, বিজেপিতে থেকে এলাকার কোনও কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না। সবক্ষেত্রেই বাধা আসছিল। তাই এলাকার উন্নয়নের স্বার্থেই তৃণমূলে যোগদান।