শিলিগুড়ির মহিলা সহ সারিতে চিকিৎসাধীন ৩ জনের মৃত্যু

1209

শিলিগুড়ি: করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন এক মহিলা সহ তিন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। রবিবার মধ্যরাতে এই রোগীদের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে ৩৮ বছর বয়সি এক মহিলার বাড়ি শিলিগুড়ি পুরনিগমের ১ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ আম্বেদকর কলোনীতে। বাকি দুজন উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুর এবং জলপাইগুড়ির মেটেলির বাসিন্দা। এই মহিলা করোনার উপসর্গ নিয়ে গত শনিবার শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালের বহির্বিভাগে চিকিৎসার জন্য গিয়েছিলেন। সেখান থেকেই চিকিৎসকরা তাঁকে কাওয়াখালির সিভিয়ার অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইলনেসের (সারি) হাসপাতালে রেফার করেন। সেদিন থেকেই তিনি ওই হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাঁর লালার নমুনা ওই রাতেই সংগ্রহ করে উত্তরবঙ্গ মেডিকেলের ভাইরাস রিসার্চ অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক ল্যাবরেটরিতে (ভিআরডিএল) পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট সোমবার দুপুর পর্যন্ত আসেনি।

অন্যদিকে, ইসলামপুরের গাইসালের উত্তর জাগিরবস্তির এক বৃদ্ধ গত শনিবার থেকে করোনার উপসর্গ নিয়ে সারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তাঁরও লালার নমুনা ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু রিপোর্ট আসেনি। সোমবার ভোর রাতে তিনিও মারা গিয়েছেন। গতকালই উত্তরবঙ্গ মেডিকেলে প্রাথমিক চিকিৎসার সময় চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে মেটেলির বাসিন্দা ৪৭ বছর বয়সি এক ব্যক্তিকে সারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য রেফার করা হয়। তিনিও আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। সেখানেই সোমবার ভোর রাতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। করোনার উপসর্গ থাকায় মৃত্যু পরেই এই ব্যক্তির লালার নমুনাও পরীক্ষার জন্য ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়েছে। তিনজনেরই লালার নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট না আসায় দুপুর পর্যন্ত মৃতদেহগুলি পরিবারের হাতে দেওয়া হয়নি।

- Advertisement -

মেডিকেল সূত্রের খবর, ওই নমুনাগুলি ইতিমধ্যেই পরীক্ষার জন্য গিয়েছে। বিকেলের মধ্যে রিপোর্ট চলে আসবে। রিপোর্ট পাওয়ার পরেই মৃতদেহ হস্তান্তরের কথা ভাবা হবে। এই নিয়ে এখনও পর্যন্ত সারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মোট সাতজনের মৃত্যু হল।