ডেঙ্গুর থাবা রায়গঞ্জে, আক্রান্ত তিন

477

রায়গঞ্জ: করোনার পর এবার ডেঙ্গুর থাবা রায়গঞ্জে। রায়গঞ্জ মহকুমায় তিনজনের ম্যাক এলাইজা টেস্টে ডেঙ্গু ধরা পড়েছে।

সম্প্রতি রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের প্যাথলজি বিভাগে ম্যাক এলাইজা টেস্ট তিনজনের রক্তের নমুনায় ডেঙ্গু মেলে। বর্তমানে তাঁরা রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগে চিকিৎসাধীন। ক্রমশই সুস্থ হয়ে উঠছেন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীরা। এমনটাই জানালেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান।

- Advertisement -

তিনি বলেন, তিনজনের রক্তের নমুনা ম্যাক এলাইজা টেস্টে ডেঙ্গুর জীবাণু ধরা পড়েছে। তাঁরা এখন সুস্থ রয়েছেন। আতঙ্কের কোন কারণ নেই।” শনিবার ডেঙ্গু প্রতিরোধ দিবসে জেলাজুড়ে প্রচারে নামছে স্বাস্থ্য দপ্তর। ইতিমধ্যেই সমস্ত পুরসভা, পঞ্চায়েতকে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে প্রচারে নামার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার কর্ণজোড়া মাল্টিপারপাস হলে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর, জেলা প্রশাসন, বিভিন্ন পুরসভার পুরপ্রধান, জেলা পরিষদের সভাধিপতি, পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি ও সভাপতি, বিভিন্ন পঞ্চায়েতের প্রধানদের নিয়ে বৈঠক করেন জেলা স্বাস্থ্য দফতরের কর্তারা। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রচার গাড়ির মাধ্যমে এই কাজ করতে বলা হয়েছে।

উত্তর দিনাজপুর জেলার স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান বলেন, “সমস্ত জনপ্রতিনিধিদের একত্রিত হয়ে প্রচারে শামিল হতে হবে।” জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়ার প্রচার চালানোর প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।

স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্তাদের বক্তব্য, করোনা আমরা আনিনি, তাই এর দায় আমাদের নয়। কিন্তু, রোগ প্রতিরোধে সামাজিক সচেতনতা বাড়াতে হবে। এখন সবাই করোনার কথা বলছেন, কিন্তু ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়াতে জেলায় অনেকেই প্রাণ হারিয়েছেন কয়েক দশক ধরে। তাই মশা মারতে সোডিয়াম ক্লোরাইড জলে দিতে হবে। এতে মশার ডিম মরে। কোভিডের ওপর যে প্রোটিন স্তর আছে সেটাও ভেঙে যায়। তাই এই ভাইরাস ও মরে যায়।

এর পাশাপাশি ডেঙ্গু নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে নিরবিচ্ছিন্ন প্রচার চালানোর জন্য বিভিন্ন পুরসভার চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদের সভাধিপতি, সহকারি সভাধিপতি, বিভিন্ন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি, সহ-সভাপতি ও পঞ্চায়েতের প্রধানদের নির্দেশ দেন জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান।

ডেঙ্গু প্রতিরোধ দিবসে উত্তর দিনাজপুর জেলায় ৯৮টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় মশা মারতে কামান দাগা হবে। পাশাপাশি ইসলামপুর, ডালখোলা, রায়গঞ্জ, কালিয়াগঞ্জ সহ একাধিক ব্লকে মশা মারতে কামান দাগা হবে। এছাড়া বিভিন্ন পরিত্যক্ত বাড়ি ও ড্রেনে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হবে।