ফেব্রুয়ারির মধ্যে দেশে রোজ প্রায় ৩ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হবেন: সমীক্ষা

614

নয়াদিল্লি: দেশে যে হারে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে তাতে করে যদি সময় মতো কোনও ভ্যাকসিন তৈরি না হয়ে থাকে তবে পরের বছর শুরুর দিকেই করোনা ভাইরাস মহামারির ভয়াল রুপ দেখতে চলেছে দেশ। বিশ্বের ৮৪টি দেশের মোট জনসংখ্যার ৬০ শতাংশের সমন্বয়ে ওপর একটি সমীক্ষার পর এবং করোনা সক্রান্ত ডেটা নিয়ে সাম্প্রতিক গবেষণার ওপর ভিত্তি করে ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) গবেষকরা এই ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন। তাঁদের বক্তব্য অনুযায়ী ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যে ভারতে রোজ ২ লক্ষ ৮৭ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হবেন।

ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি এমআইটির স্লোয়ান স্কুল অফ ম্যানেজমেন্টের গবেষক হাজির রাহমান্দাদ এবং জন স্টেরম্যান এপিডেমিওলজিস্টদের দ্বারা করোনার মতো সংক্রামক রোগগুলি নিয়ে তথ্য বিশ্লেষণের জন্য একটি স্ট্যান্ডার্ড গাণিতিক মডেল এসআইআর ব্যবহার করেছেন। সেখানেই এই অনুমান নির্ভর তথ্য উঠে এসেছে। গবেষকদের আরও অনুমান, করোনা আক্রান্তদের চিকিত্সার অভাবে ২০২১ সালের মার্চ-মে মাসের মধ্যে বিশ্বব্যাপী মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২০ কোটি থেকে ছাড়িয়ে ৬০ কোটি পর্যন্ত বাড়তে পারে।

- Advertisement -

এই সমীক্ষায় আরও দেখা গিয়েছে, করোনা ভাইরাসের কারণে গোটা বিশ্বে ভারত সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হবে, তারপর, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সেখানে প্রতিদিন ৯৯ হাজারেরও বেশি সংক্রামিত হবেন। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকা, সেখানে দিনে ২১ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হবেন। তারপর ইরান, প্রতিদিন ১৭ হাজার করোনা আক্রান্তের খবর মিলতে পারে। আসছে বছর ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে এমনটাই হতে পারে এমনটাই অনুমান করেছেন এমআইটির গবেষকরা।

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৭ লক্ষে পৌছে গেল। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন দেশের প্রায় ২২ হাজার ৭৫২ মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ৪৮২ জনের। দেশের করোনা পরিস্থিতি ক্রমশই জটিল হচ্ছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সদ্য প্রাপ্ত বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘন্টায় ১৫ হাজার ৫১৫ জন সুস্থ হয়েছেন। এ পর্যন্ত দেশজুড়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭ লক্ষ ১৯ হাজার ৬৬৫ জন। মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ৬৪২।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ রাজ্য মহারাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত ২ লক্ষ ১১ হাজার ৯৮৭ জন। নতুন করে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৩৬৮ টি করোনা সংক্রমণের ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে। সে রাজ্যে ১ লক্ষ ১৫ হাজার ২৬২ জন সুস্থ এবং ৯ হাজার ২৬ ইতিমধ্যেই মারা গিয়েছেন। গত একদিনেই মৃত্যু হয়েছে ২০৪ জনের।