মাল শহরে করোনা আক্রান্ত আরও ৩

ফাইল ছবি

মালবাজার: মাল শহরে নতুন করে তিনজন করোনায় সংক্রামিত হয়েছেন।

মাল পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, নতুন তিনজন সংক্রমিতের মধ্যে দুজন গৃহবধূ। তাঁদের বাড়ি যথাক্রমে শহরের ৪ এবং ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে। তাঁদের স্বামীরা পূর্বেই করোনা সংক্রামিত হয়েছেন। অন্য আরেক বাসিন্দা ৫৯ বছর বয়সী পুরুষ। তাঁর বাড়ি শহরের ১১ নম্বর ওয়ার্ডে। সবমিলিয়ে মাল শহরে এখনও পর্যন্ত ৫৪ জন করোনায় সংক্রামিত হয়েছেন। মাল পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, নতুন করোনা সংক্রামিতদের প্রক্রিয়া অনুসারেই সেফ হোমে পাঠানো হয়েছে।

- Advertisement -

এদিকে মাল কোভিড কেয়ার সংগঠন বেঙ্গল কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের মালবাজার শাখার কাছে লিখিত আবেদন জমা দিয়েছে। লিখিত আবেদনে চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন ছাড়া সরাসরি রোগীদের জ্বরের কমানোর ওষুধ না দেওয়ার আবেদন করা হয়েছে। সংগঠনের তরফে বলা হয়েছে, অনেক বাসিন্দারা জ্বর, সর্দি, কাশির ওষুধ সরাসরি ওষুধের দোকান থেকে সংগ্রহ করছেন।

আবেদন করা হয়েছে, চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন দেখেই যাতে এই ধরনের ওষুধ বিক্রি করা হয়। বেঙ্গল কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের মালবাজার শাখার সম্পাদক গৌতম সেন বলেন, আমরা আগেই সমস্ত ওষুধ বিক্রেতাদের জানিয়ে দিয়েছি চিকিৎসকদের প্রেসক্রিপশন দেখেই জ্বর, সর্দি, কাশির ওষুধ বিক্রি করার জন্য। আবারও বিষয়টি সমস্ত বিক্রেতাদের জানিয়ে দেওয়া হবে।

এদিকে রাজ্য সরকারের নির্দেশ মেনে জলপাইগুড়ি জেলা প্রশাসন জলপাইগুড়ি শহরের পাশাপাশি মাল শহরের উপসর্গহীন করোনা সংক্রমিতদের হোম আইসোলেশনে থাকার রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রশাসনিক সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার থেকে এই ব্যবস্থা কার্যকরী করা হতে পারে। নিজের বাড়িতে পৃথক ব্যবস্থা থাকলে সেখানেই উপসর্গহীন করোনা রোগীদের আইসোলেশনে রাখা হবে। সেখানে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পরামর্শ মিলবে।

প্রশাসন এবং স্বাস্থ্য বিভাগের নজরদারিও থাকবে। প্রশাসনের তরফে এ বিষয়ে সর্বস্তরের জনগণের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। জলপাইগুড়ি জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডা: রমেন্দ্রনাথ প্রামানিক বলেন, সরকারি নির্দেশ মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। মাল পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারপার্সন স্বপন সাহা বলেন, আমরা হোম আইসোলেশন কার্যকরী করার আগে বৈঠক করব। সমস্ত বাসিন্দাদের সচেতনতা বাড়ানোর উদ্যোগ নিচ্ছি।