পুরোনো মন্দির থেকে ‘আন্ডারওয়ার্ল্ডের’ সূত্র, বিস্তারিত জানলে অবাক হবেন আপনিও

205
সংগৃহীত

পোর্টাল ডেস্ক: অবাক কাণ্ড তুরস্কে। পুরোনো মন্দির থেকে উদ্ধার হল ‘আন্ডারওয়ার্ল্ডের’ সূত্র৷ তুরস্কে প্রত্নতাত্ত্বিকরা খননে উদ্ধার করেছে একটি প্রাচীন ক্যালেন্ডার এবং পৃথিবীর পুরনো ম্যাপ। সূত্রের খবর অনুযায়ী, প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগ একটি মন্দির খননের সময়  ওই ম্যাপ উদ্ধার করেছে।  একই জায়গায় পাথরের গায়ে বেশ কিছু  চিত্রের সন্ধানও  পেয়েছেন তারা।

জানা গিয়েছে ওই ম্যাপে একটি ‘আন্ডারওয়ার্ল্ড’-এর উল্লেখ করা হয়েছে। প্রত্নতাত্ত্বিকদের মতে উল্লেখিত ওই  ‘আন্ডারওয়ার্ল্ড’ নাকি পৃথিবীর নীচে অবস্থান করছে। ১৮৩৪ সালে ফরাসি প্রত্নতাত্ত্বিক ও ইতিহাসবিদ চার্লস টেক্সিয়ার ওই মন্দিরটি আবিষ্কার করেন।

- Advertisement -

মন্দিরের গায়ে চুনাপাথরের উপর খোদাই করা চিত্রগুলির মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন প্রাণী, শয়তান এবং ভগবানের ছবি। মন্দির আবিষ্কারের ২০০ বছর পরে এই চিত্রের রহস্য ব্যাখ্যা করতে পারলেন বিজ্ঞানীরা। গবেষকদের দাবি, এই ছবিতে পৃথিবী, আকাশ এবং ‘আন্ডারওয়ার্ল্ড’-এর ছবি আঁকা হয়েছে। পাশাপাশি একটি দেওয়ালে সূর্যদেব এবং ঝড়ের দেবীর ছবিও আঁকা হয়েছে।

মন্দিরের দেওয়ালে দেবতার ছবি রয়েছে অন্য ছবিগুলির একটু উপরে। অন্যদিকে পূর্ব ও পশ্চিম দেওয়ালে কম দেবতার ছবি আঁকা হয়েছে। এছাড়া চাঁদের বিভিন্ন অবস্থার ছবি এঁকে জন্ম-মৃত্যুও দেখানো হয়েছে।  মনে করা হচ্ছে সে সময়কার এই স্থলের জনজাতি ১৭ জন দেব-দেবীকে মেনে চলত। একটি দেওয়ালে এমন একটি ছবি আঁকা রয়েছে, যা আন্ডারওয়ার্ল্ড সম্পর্কে তথ্য দেয়।

এক গবেষক জানিয়েছেন, খুব সম্ভবত পুরো মহাবিশ্বের ধারণা করেই তখনকার দিনে এই ছবি আঁকা হয়েছিল। পৃথিবী, আকাশ, পাতাল এসব তো দেখানো রয়েছেই। পাশাপাশি দিন, রাত, শীত, গ্রীষ্ম এমন নানারকম সময়ের পার্থক্যও দেখানো হয়েছে।