অবৈধভাবে রেলের ই-টিকিট বিক্রির অভিযোগে গ্রেপ্তার ৪

138

আসানসোল: অবৈধভাবে রেলের ই-টিকিট বেশি দামে বিক্রির অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হল। মঙ্গলবার রাতে ওই ৪ জনকে গ্রেপ্তার করল পূর্ব রেলের আসানসোল ডিভিশনের আরপিএফ পোষ্ট। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতদের নাম হল দুর্গাপুরের কাঁকসা থানার রাধামোহন পুরের রাজীব রায়, জামতাড়ার রাজপল্লী হনুমান মন্দিরের অভয় কুমার রায়, দেওঘরের সারাঠের আলি রাজা ও আসানসোলের হটন রোডের কালি মন্দির এলাকার সুমিত শর্মা। বুধবার ধৃতদের আসানসোল আদালতে তোলা হয়।

জানা গিয়েছে, রেলের ই-টিকিট বাইরে বিভিন্ন দোকান ও আউটলেট থেকে বেআইনিভাবে বিক্রি করা হচ্ছে বলে বেশ কিছুদিন ধরে পূর্ব রেলের আসানসোল ডিভিশনের আধিকারিকদের কাছে খবর আসছিল। সেসব টিকিটের দাম অনেক বেশি করে নেওয়া হচ্ছিল বলে রেলের আধিকারিকরা জানতে পারেন। সেই খবরের সত্যতা যাচাই করতে বাংলা ও ঝাড়খণ্ডের বেশকিছু শহরে পূর্ব রেলের আসানসোল ডিভিশনের আরপিএফ পোস্ট নজরদারি চালায়।

- Advertisement -

গোপন সূত্রে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আরপিএফ জানতে পারে আসানসোল, জামতারা, মধুপুর ও পানাগড়ের বেশকিছু দোকান ও আউটলেট পার্সোনাল ও আইআরসিটিসির ইউজার আইডি ব্যবহার করে ই-টিকিট বিক্রি করছে। আরপিএফ মঙ্গলবার পশ্চিম বর্ধমান জেলার কাঁকসার ও জামতাড়ার দুটি জেরক্সের দোকান ও দেওঘরের একটি অনলাইন সেবা কেন্দ্র ও আসানসোলের হটন রোডের রাসডাঙা মোড় সংলগ্ন একটি দোকানে অভিযান চালায়। সেই অভিযানে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে মোট ৭৮টি ই-টিকিট বাজেয়াপ্ত করা হয়। যার বাজার দর ১ লক্ষ ৪ হাজার ৫৯ টাকা। আরপিএফের আধিকারিকরা জানান, ধৃতরা ৩ জন আইআরসিটিসি এজেন্টের ও ৭ জনের পার্সোনাল ইউজার আইডি ব্যবহার করছিল।