হাওড়া ও হাবরায় আক্রান্ত পুলিশ, আহত ৪ পুলিশকর্মী

247
ফাইল ছবি

কলকাতা: শুক্রবার রাতে এক আসামি ধরতে গিয়ে হাবরা থানার এক অফিসার সহ দুই পুলিশকর্মী কই পুকুর এলাকার বাসিন্দাদের হাতে আক্রান্ত হন। আক্রান্ত ওই দুই পুলিশকর্মীকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে বাড়তি পুলিশবাহিনী গিয়ে ওই ঘটনায় অমিত রায় ও অমল রায় নামে দুই গ্রেপ্তার করা হয়। সম্পর্কে তাঁরা ছেলে ও বাবা।

অপরদিকে শনিবার সকালে হাওড়া উলুবেড়িয়া মহকুমা রাজপুর থানার অন্তর্গত বাসুদেবপুরের একটি বাজারে লকডাউন বলবত করতে গেলে স্থানীয় বাসিন্দাদের হাতে পুলিশকে আক্রান্ত হতে হয়। ওই ওই ঘটনাযতেও আহত পুলিশ কর্মীদের হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে। তবে সেখানকার ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করেনি।

- Advertisement -

কইপুকুরের ঘটনায় অভিযোগে প্রকাশ, সেখানকার বাসিন্দা অমিত রায় বলে এক ব্যক্তি মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে কিছু কুরুচিকর মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন। আর সেই ব্যাপারে দায়ের হওয়া একটি মামলার তদন্ত করতে হাবরা থানার এসআই রাখোহরি ঘোষ ও ওই থানার অরিজিত ঘোষ নামে এক কনস্টেবলকে সঙ্গে নিয়ে অমিতবাবুকে গ্রেপ্তার করতে যায়।

কিন্তু সেসময় পাড়ার লোকেরা পুলিশের উপর চড়াও হয়। সেই সময় অমিতবাবু একটি শাবল দিয়ে রাখোবাবুর বুকে আঘাত করলে তিনি গুরুতর আহত হন। খবর পেয়ে আরও পুলিশকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে অমিত রায় ও তার বাবা অমল রায়কে গ্রেপ্তার করে। আহত দুই পুলিশকর্মীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়।

বাসুদেবপুর বাজারে এদিন লকডাউনের নিয়মকে উপেক্ষা করে বহু মানুষ বাজার করছিলেন। বিষয়টি দেখতে পেয়ে পুলিশকর্মীরা তাঁদের বাধা দিতে গেলে স্থানীয় লোকদের সঙ্গে প্রথমে তাঁদের বিবাদ বাধে। পরে তাঁরা ইট পাথর নিয়ে পুলিশকে আক্রমণ করলে সেখানে দুই পুলিশ কর্মী গুরুতর আহত হন। থানা থেকে বাড়তি পুলিশ বাহিনী গেলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। তবে এই ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।