নদীতে স্নান করতে গিয়ে তলিয়ে গেল ৫ শিশু

0
244
- Advertisement -

সামসেরগঞ্জ: গঙ্গা নদীতে স্নান করতে গিয়ে তলিয়ে গেল পাঁচ শিশু। স্থানীয় লোকেদের তৎপরতায় তিন শিশুকে উদ্ধার করা গেলেও এখনও খোঁজ মেলেনি দুই শিশুর। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দুপুরে মুর্শিদাবাদের সামসেরগঞ্জ থানার লোহরপুর ঘাটে। নিখোঁজ ওই দুই শিশুর নাম সাকিবুল ইসলাম (৮) এবং খাতিজা সুলতানা (৯)। তাঁরা দুজন দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রছাত্রী। নিখোঁজ শিশুদের বাড়ি সামসেরগঞ্জের মধ্য চাচন্ড গ্রামে। ঠাকুমার বাড়িতে বেড়াতে এসে এদিন এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন দুপুরে ওই পাঁচ শিশু তাদের এক বয়স্ক ঠাকুমার সাথে গঙ্গা নদীতে স্নান করতে যায়। নদীতে জল খুব বেশি থাকার জন্য পাঁচ শিশু নদীতে তলিয়ে যেতে থাকে। আশেপাশের লোকজন শিশুদের চিৎকার শুনে এবং তাদেরকে ডুবে যেতে দেখে জলে ঝাঁপিয়ে কোন রকমে তিন শিশুকে উদ্ধার করে। কিন্তু শনিবার বিকেল পর্যন্ত দুই শিশুর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। ইতিমধ্যে ঘটনাস্থলে এসে উপস্থিত হয়েছে সামসেরগঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। স্থানীয় লোকজন ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সদস্যদের উদ্ধার কাজে নামানো হয়েছে।

সাকিবুলের এক আত্মীয় , কাউসার আলি বলেন, ‘ওরা এক নানীর সাথে নদীতে স্নান করতে এসেছিলো।তারপর নদীর ধারে খেলতে খেলতে জলে নেমে যায়। তখন এই দুর্ঘটনা ঘটে। আমরা প্রথমে ভেবেছিলাম পাঁচজনকেই উদ্ধার করা গেছে। কিন্তু পরে বুঝতে পারি দুজন শিশু এখনও নিখোঁজ।‘

অন্যদিকে, এদিন অপর একটি ঘটনাতে জলে ডুবে মৃত্যু হল এক ছয় বছরের শিশুর। মৃত শিশুর নাম রাহুল মল্লিক। ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদ সাগরপাড়া থানার গোদাগাড়ী এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, শুক্রবার বিকেল থেকে নিখোঁজ ছিল রাহুল। এদিন সকালে স্থানীয় একটি পুকুরে রাহুলের প্রাণহীন দেহটি ভাসতে দেখা যায়। এলাকার লোকেদের ধারণা কোনভাবে পা পিছলে ওই পুকুরে পরে গিয়ে ডুবে মৃত্যু হয়েছে রাহুলের।

- Advertisement -