ষাঁড়ের গুঁতোয় জখম ৫

183

জামালদহ: এক খ্যাপা ষাঁড়ের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে সাধারণ জনজীবন। ষাঁড়ের গুঁতোয় ইতিমধ্যে বহু মানুষ জখম হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে অনেকেই হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ ব্লকের জামালদহ এলাকায় গত কয়েকদিন ধরে এভাবেই তাণ্ডব চালাচ্ছে ষাঁড়টি। ষাঁড়ের ভয়ে ঘুম উড়েছে সাধারণ মানুষের। অবশেষে স্থানীয়দের চেষ্টায় ষাঁড়টিকে একটি ক্লাবের মাঠে আটকে রাখা হয়েছে। যদিও সেই আটক ষাঁড়কে নিয়ে এখন বেশ ফাঁপড়ে পড়েছে পুলিশ প্রশাসন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এলাকার রাস্তাঘাটে গত কয়েকদিন ধরেই ওই ষাঁড়টিকে দেখা যাচ্ছে। লোক দেখলেই তেড়ে যাচ্ছে। আর এভাবেই প্রায় রোজই ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে এলাকায়। জামালদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান প্রশান্ত কুমার সাহা বলেন, ‘এক গৃহবধূ সহ মোট পাঁচ জন এই সপ্তাহেই ষাঁড়ের আক্রমণে আহত হয়েছেন। ওই ষাঁড়টি শিং দিয়ে গুঁতিয়ে গৃহবধূর হাত চিড়ে দিয়েছে।‘

- Advertisement -

এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন, কোনওভাবে খাবারের লোভ দেখিয়ে এদিন ষাঁড়টিকে জামালদহের একটি ক্লাব প্রাঙ্গণে আটকে রাখা হয়। পুলিশ প্রশাসনের কাছে সাহায্যের আবেদন জানানো হয়েছে। ষাঁড়টিকে লোকালয় থেকে দূরে কোথাও পাঠানোর ব্যবস্থা করতে বনবিভাগের কাছেও আর্জি জানিয়েছেন সাধারণ বাসিন্দারা। তবে, প্রত্যেকেই দায়িত্ব নিতে নারাজ বলে অভিযোগ।

এ ব্যাপারে মেখলিগঞ্জ ব্লকের বিডিও অরূপকুমার সামন্ত জানিয়েছেন, ঘটনাটি কানে এসেছে। যথাযথ পদক্ষেপ করা হবে।