ইটাহারে মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু ২ শিশু সহ ৫ জনের

84

ইটাহার: টোটো, মোটরবাইক ও লরির সংঘর্ষে মৃত্যু হল ২ শিশু সহ ৫ জনের। বুধবার রাত দেড়টা নাগাদ মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটে উত্তর দিনাজপুর জেলার ইটাহার থানার চাভোট মোড় এলাকার ১২ নম্বর জাতীয় সড়কে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতরা হলেন স্বপন দাস (৪০)। তিনি পেশায় টোটো চালক। দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে পিংকি দাস (৩২), ইশান দাস (১.৫ বছর), অনির্বাণ বসাক (১৩) এবং পঞ্চমী দাস (১৬)। গুরুতর আহত অবস্থায় হিমাংশু দাস (১৪), অনিমেষ দাস (১২), বিউটি বসাক (৩৫), অনন্যা দাস(৫), চন্দনা দাস (২৫) সহ ছয়জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গতকাল গভীর রাতে ইটাহার হাইস্কুল সংলগ্ন শম্ভু কুণ্ডু নামে এক ব্যক্তির বিয়ে খেয়ে ১১ জন টোটো ও মোটরবাইক নিয়ে ফিরছিলেন। পথে ইটাহার পেট্রোল পাম্প সংলগ্ন চাভোট মোড় এলাকায় ১২ নম্বর জাতীয় সড়কে পিছন দিক থেকে আসা একটি লরি টোটো ও বাইকটিকে ধাক্কা মারে। স্থানীয় ও ইটাহার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে জখম অবস্থায় সকলকে উদ্ধার করে ইটাহার গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দু’জনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। বাকি নয়জনকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়। কিছুক্ষণ চিকিৎসার পর সেখানে তিনজনের মৃত্যু হয়। বাকি ছয়জনকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান জেলা পুলিশের কর্তারা। ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাইক ও টোটোটিকে উদ্ধার করে ইটাহার থানায় নিয়ে যাওয়া হলেও ঘাতক লরিটির চালক লরি সহ পালিয়ে যাওয়ায় সেটিকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। এই বিষয়ে পুলিশ সুপার সুমিত কুমার জানান, দুর্ঘটনায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে ঘাতক লরির খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। পাঁচজনের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল পুলিশ মর্গে রয়েছে। দুর্ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।

- Advertisement -