বিজেপি সাংসদের বাড়ি থেকে উদ্ধার ৫০টি অ্যাম্বুলেন্স, সরগরম রাজনৈতিক মহল

193

কিশনগঞ্জ: একদিকে অ্যাম্বুলেন্সের অভাবে ভোগান্তি বাড়ছে রোগীদের। একপ্রকার লড়াই করে হাসপাতালে বা শ্মশানে নিয়ে যেতে গচ্ছে রোগীদের। সেই সময় বিহারের সারনের(ছাপড়া) বিজেপি সাংসদ তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজীব প্রতাপ রুডির আমনোর গ্রামের দপ্তর ও বাড়ির পেছন থেকে ৫০টির বেশি অ্যাম্বুলেন্সের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। পূর্ণিয়ার প্রাক্তন রাজদ সাংসদ তথা বর্তমান জাপ পার্টির সুপ্রিমো রাজেশ রঞ্জন যাদব রাজীব প্রসাদ রুডির দপ্তরের পেছনে হানা দিয়ে উদ্ধার করেন সাংসদ তহবিল থেকে কেনা ওই অ্যাম্বুলেন্সগুলি।

শুক্রবার দুপুরে রাজেশ রঞ্জন যাদবের স্থানীয় সারন প্রশাসনের কর্তাদের নিয়ে এই হানার পরে রাজ্য রাজনীতি ও স্বাস্থ্য দপ্তর সরগরম হয়ে ওঠে। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, সাংসদ তহবিলের টাকায় কেনা অ্যাম্বুলেন্সগুলি বিগত মাস ছয়েক ধরে ঘটনাস্থলে ঢাকা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। যদিও সাংসদ জানান, চালকের অভাবে এই অ্যাম্বুলেন্সগুলিকে ভালোভাবে রেখে দেওয়া হয়েছে। রাজেশ রঞ্জন যাদব সুদূর পূর্ণিয়া বা মধেপুরার থেকে এসে সারনে রাজনীতি শুরু করার চেষ্টা করছেন বলে জানা গেছে। জাপ পার্টির সুপ্রিমো শনিবার লাইসেন্স প্রাপ্ত ৪০ জন অ্যাম্বুলেন্স চালকের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। তিনি জানান, শীঘ্রই বাকি অ্যাম্বুলেন্সগুলির চালকের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে।

- Advertisement -

অন্যদিকে, কিশনগঞ্জের জেলাশাসক ডঃ আদিত্য প্রকাশ অ্যাম্বুলেন্সের চালকদের বিরুদ্ধে একটি সতর্কতা বার্তা জারি করেছেন। কোভিড রোগী বা অন্যান্য কারও কাছ থেকে বেশি ভাড়া নেওয়া যাবে না বলে জানিয়েছেন তিনি। অ্যাম্বুলেন্সের মাইলেজ হিসেবে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানান জেলা তথ্য আধিকারিক রঞ্জিত কুমার সাহু। যদি চালক ও মালিকদের বিরুদ্ধে কোনও ধরনের অভিযোগ পাওয়া যায়। তবে, তার লাইসেন্স বাতিল করে, বিশেষ আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।