পাচারের আগে ৬টি গোরু উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৬

123

বক্সিরহাট: অসম-বাংলা সীমানায় পাচারের আগে ৬টি গোরু সহ ৬ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করল অসম পুলিশ। গরু পাচারকাণ্ডে যুক্ত থাকার অভিযোগে পুলিশ বক্সিরহাট থানার বালাকুঠি এলাকার বাসিন্দা শাহিনুর হক, মজনু শেখ, সিদ্দিক আলি, অসমের বিদ্যারডাবরির বাসিন্দা একতারুল হক, তুফানগঞ্জের বাসিন্দা একরামুল শেখ ও অভিজিৎ সাহাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। গোরুগুলিকে উদ্ধার করে গোলোকগঞ্জের একটি খোঁয়াড়ে রাখা হয়। পাশাপাশি, একটি পিকআপ ভ্যান ও ছোট গাড়ি বাজেয়াপ্ত করে গোলকগঞ্জ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

অসম গোলকগঞ্জ থানার ওসি নবজিৎ নাথ জানান, বক্সিরহাট সংলগ্ন অসম ছাগলিয়া আরক্ষী চকির আইসি প্রশান্ত দাস রবিবার রাতে গোপন সূত্রে পশ্চিমবাংলার বালাকোটি এলাকায় একটি পিকআপ ভ্যান আসার খবর পান। তৎক্ষণাৎ আইসির নেতৃত্বে পুলিশবাহিনী ভ্যানটির পিছু ধাওয়া করে। সেখান থেকে হালাকুরা নাকাচেকিংয়ে ভ্যানটিকে আটকানোর চেষ্টা করা হলে সেখানে পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে চালক ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যায়। অবশেষে ছাগলিয়া হালাকুরা আগমনী পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ ও গোলোকগঞ্জ থানার পুলিশ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার পিছু ধাওয়া করে দুই রাউন্ড গুলি চালিয়ে পিকআপ ভ্যানটিকে থামতে বাধ্য করে।

- Advertisement -

পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিক তদন্তের পর তারা জানতে পারে গোরুগুলিকে বালাকুঠি এলাকা থেকে পিকআপ ভ্যানে তুলে অসমের গৌরীপুরের দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল পাচারকারীরা। বারবার বাংলা থেকে অসমের দিকে এভাবে গোরু পাচার হওয়ায়় সীমান্ত এলাকায় নজরদারি জোরদার করেছে পুলিশ।