এক পরিবারের ৬ জন করোনা আক্রান্ত, জেলায় ৬২৯

267

আসানসোল: পশ্চিম বর্ধমান জেলায় শনিবার রাতে করোনা আক্রান্তর সংখ্যা ৬০০ ছাড়াল। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর, শনিবার রাত পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্তর সংখ্যা ৬২৯ জন। গত ২৪ ঘন্টায় (শুক্রবার রাত থেকে শনিবার রাত) নতুন করে ৫৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। জেলায় করোনা রোগ মুক্ত হয়ে সুস্থ অবস্থায় বাড়ি ফিরছেন ২৯০ জন। এই মুহুর্তে জেলায় অ্যাক্টিভ করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩১ জন। ৪০০ বেডের দূর্গাপুরের কোভিড ১৯ হাসপাতালে এই মুহূর্তে ১৫০ জনেরও বেশী চিকিৎসার জন্য ভর্তি রয়েছেন।

আসানসোল জেলা হাসপাতালের আইসোলেশান ওয়ার্ডে রবিবার পর্যন্ত ১৪ জন ভর্তি রয়েছেন। জেলা হাসপাতালের আইসোলেশান ওয়ার্ডে বেডের সংখ্যা ৩৬। হাসপাতাল সূত্রে খবর, প্রয়োজনে বেডের সংখ্যা বাড়ানো হবে। তারজন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে জায়গা রয়েছে। জেলা হাসপাতালের ট্রুনেট মেশিনের শনিবার রাত পর্যন্ত ১০০৫ জনের লালার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

- Advertisement -

অন্যদিকে, আসানসোল জেলা হাসপাতালের কর্মী আবাসনের বাসিন্দা তথা জেলা সিএমওএইচ অফিসের এক কর্মী আগেই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ওই কর্মীর পরিবারের আরও ৫ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারমধ্যে একজন জেলা হাসপাতালের স্থায়ী কর্মী। দুজন অস্থায়ী কর্মী হিসাবে জেলা হাসপাতালে কাজ করতেন। এ কারণে আক্রান্তরা যে আবাসনে থাকেন, তার আশপাশের আবাসনে থাকা অন্য কর্মী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের লালার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রত্যকেরই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তবে একসঙ্গে এক পরিবারের এতজন সদস্য করোনা আক্রান্ত হওয়ায় জেলা হাসপাতালের কর্মী মহলে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। তবে জেলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও স্বাস্থ্য দপ্তর প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নিয়েছে বলে খবর।

অন্যদিকে, আসানসোল পুরনিগমের জামুড়িয়া বোরো অফিসের এক কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে। তিনি জামুড়িয়ার বাসিন্দা। এ ছাড়াও, জামুড়িয়ার এক এ্যাম্বুলেন্স চালক সহ আরও চারজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কর্মী করোনা আক্রান্ত হওয়ায় আগামী কাল সোমবার জামুড়িয়া বরো অফিসের বেশ কয়েকজন কর্মীর লালার পরীক্ষা করা হবে।

রবিবার বিকালে পশ্চিম বর্ধমানের জেলাশাসক পূর্ণেন্দু কুমার মাজি বলেন, জেলার করোনা পরিস্থিতির দিকে সবসময় নজর রাখা হয়েছে। সময়ে সময়ে রাজ্য সরকারের নির্দেশ মতো পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।