৬ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে খুন, গ্রেপ্তার দুই

1616

চন্ডীগড়: ফের নারকীয় ঘটনা সামনে এল। এবার পরিযায়ী শ্রমিকের ৬ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে খুনের অভিযোগ উঠল। পঞ্জাবের হোশিয়ারপুরের টান্দার জালালপুর গ্রামের ঘটনা। ইতিমধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিশুর আধপোড়া দেহ উদ্ধার করেছে। একই সঙ্গে দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃতদের নাম গুরপ্রীত সিং এবং তার দাদা সুরজিৎ সি। ধৃতদের বিরুদ্ধে ভারতীয় খুন ও ধর্ষণ অভিযোগে পক্সো আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই ঘটনা নিয়ে এখন সরগরম হয়ে উঠেছে কংগ্রেস শাসিত পঞ্জাব। ইতিমধ্যে পঞ্জাহ রাজ্য অনুসুচিত জাতি আয়োগের চেয়ারপার্সন তেজিন্দর হোশিয়ারপুরের পুলিশ সুপারের কাছে রিপোর্ট তলব করেছে। আগামী ২৬ অক্টোবরের মধ্যে রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে।

নির্যাতিতার বাবার অভিযোগ, গুরপ্রীত তার মেয়েকে নিজের বাড়ি নিয়ে গিয়েছিল। সেখানেই শিশুটির উপর নির্যাতন চালান হয়। এরপরে দাদা সুরজিৎ-এর সঙ্গে মিলে শিশুটিকে হত্যা করে। তারপরেও থামেনি তারা। দু’জনে মিলে দেহটি জ্বালিয়ে দেয়। পঞ্জাব পুলিশও জানিয়েছে, অভিযুক্তদের বাড়ি থেকেই ৬ বছরের মেয়েটির আধপোড়া দেহ উদ্ধার হয়েছে।

- Advertisement -

যেভাবে দেশে শিশু ধর্ষণের ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে তা ক্রমেই চিন্তার কারণ হয়ে উঠছে। চলতি অক্টোবরেই উত্তরপ্রদেশের হাথরসের সাসনিতে ধর্ষণের শিকার হতে হয়েছিল ৪ বছরের এই শিশুকন্যাকে। অভিযুক্ত ব্যক্তি নির্যাতিতার আত্মীয় বলেই জানা যায়।