শেষ দফার ভোটে ৭৫৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী

63
প্রতীকী ছবি।

কলকাতা: শেষ দফার ভোটের আগেই ফিরতে শুরু করেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। বৃহস্পতিবার অষ্টম তথা শেষ দফায় রাজ্যের চারটি জেলায় ৩৫টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ। তার আগেই ৩১৮ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনীকে তাদের নিজেদের জায়গায় ফেরত পাঠানো হয়ে বলে নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে। এ রাজ্যে সুষ্ঠু ভোট করাতে মোট ১০৭১ কোম্পানি বাহিনী এসেছিল। এই দফায় ভোটে লাগানো হচ্ছে ৭৫৩ কোম্পানি বাহিনীকে। তার মধ্যে বুথ পাহারার কাজে মোতায়েন করা হচ্ছে ৬৪১ কোম্পানিকে।

কমিশন সূত্রে খবর, সবচেয়ে বেশি জোর দেওয়া হয়েছে বীরভূমের ভোটে। সেখানে ২২৪ কোম্পানি বাহিনী নামানো হয়েছে। এর পাশাপাশি শুধু ওই জেলাতেই নজরদারির দায়িত্বে থাকছেন ৬ জন পুলিশ পর্যবেক্ষক। এছাড়া মুর্শিদাবাদে ২১২ কোম্পানি, মালদায় ১১০ কোম্পানি ও কলকাতা উত্তরে ৯৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী কাজে লাগানো হচ্ছে। এই দফায় মোট ১১,৮৬০টি বুথে ভোট নেওয়া হবে। এর মধ্যে বীরভূমের ১২টি আসনে ৩৯০৮টি বুথ রয়েছে। মালদায় ৬টি আসনে ২০৭৩টি বুথে ভোট নেওয়া হবে। মুর্শিদাবাদে ১১টি আসনে ৩৭৯৬টি বুথে ভোটগ্রহণ হবে। কলকাতা উত্তরে ৭টি আসনে ২০৮৩টি বুথে ভোটগ্রহণ হবে। কমিশন ভোটের নজরদারিতে ফাঁক রাখতে চায় না। দুষ্কৃতীদের ছক বানচাল করতে পুলিশও বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়েছে।

- Advertisement -

বীরভূমের সাঁইথিয়া ও ময়ূরেশ্বর থেকে বুধবার বোমা উদ্ধার হয়েছে। সাঁইথিয়া থানার আমোদপুর ফাঁড়ি এলাকার শিওড় গ্রামে ৩টি তাজা বোমা পাওয়া গিয়েছে। মযূরেশ্বরের রংতারা গ্রামে বিজেপির বুথ সভাপতি জগন্নাথ চক্রবর্তীর বাড়ির দেওয়ালে প্লাস্টিকের প্যাকেটের মধ্যে ২টি তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়। বম্ব স্কোয়াড এসে বোমাগুলি উদ্ধার করে। জগন্নাথবাবু তৃণমূলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। তৃণমূল যথারীতি তা নস্যাৎ করে দিয়েছে। অন্যদিকে, ভোটের মুখে উত্তর কলকাতার জোড়াসাঁকো বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত চিৎপুর এলাকা থেকে ১৫টি  তাজা বোমা উদ্ধার হয়েছে। দিলারজং রোডের পাঁচিলের আড়ালে বোমাগুলি বস্তাবোঝাই করে রাখা ছিল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ গিয়ে সেগুলি উদ্ধার করে।