দুষ্কৃতী ধরতে গিয়ে ডিএসপি সহ ৮ পুলিশ কর্মীর মৃত্যু, রিপোর্ট চাইলেন যোগী

341

কানপুর: দুষ্কৃতীদের গুলিতে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে মৃত্যু হল ৮ পুলিশ কর্মীর। ওই ৮ পুলিশ কর্মীর মধ্যে একজন ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্টেও ছিলেন। শুক্রবার সকালে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের তরফে এ কথা জানানো হয়েছে। এনকান্টারের সময় আরও সাতজন পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন। তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ডিজিপি অবস্থি আরও জানিয়েছেন, ‘অভিযান এখনও চলছে। অপরাধী কোনওক্রমে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। তবে তাকে দ্রুত হেফাজতে পুরতে সবরকম প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। লখনউ থেকে ঘটনাস্থলে একটি বিশেষজ্ঞ দলকেও পাঠানো হয়েছে।’

এদিকে, নিহত পুলিশকর্মীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। মৃতদের পরিবারকে সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি তিনি গোটা ঘটনার রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন। অপরাধীর বিরুদ্ধে যত দ্রুত সম্ভব কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -

সূত্রের খবর, ৬০টিরও বেশি অপরাধের মামলায় অভিযুক্ত কুখ্যাত অপরাধী বিকাশ দুবেকে ধরতে চৌবেপুর থানার অন্তর্গত ডিকরু গ্রামে অভিযান চালিয়েছিল পুলিশ। অভিযানের সময় পুলিশের একটি দল এগোনো শুরু করলেই তাঁদের দিকে ধেয়ে আসে গুলিবৃষ্টি। একটি বাড়ির ছাদ থেকে এলোপাথাড়ি গুলি চালানো হয়। তার জেরে মৃত্যু হয় ডেপুটি পুলিশ সুপার দেবেন্দ্র মিশ্র, তিন সাব ইনস্পেক্টর ও চারজন কনস্টেবলের।

উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল এইচসি অবস্থি গোটা ঘটনা সম্পর্কে সবিস্তার জানান, পুলিশের এই অভিযান সম্পর্কে আগাম খবর পেয়ে গিয়েছিল অপরাধীরা। তবে, লুকিয়ে থাকা অবস্থান থেকে অপরাধী যে এ ভাবে গুলি ছুড়বে, তা ঠাহর করতে পারেনি পুলিশ। এই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান অতিরিক্ত ডিজি (আইনশৃঙ্খলা), আইজি কানপুর ও কানপুরের সিনিয়র এসপি। ফরেন্সিক দল ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। উত্তরপ্রদেশ পুলিশ এখন গোটা এলাকা ঘিরে রেখেছে। সিল করে দেওয়া হয়েছে বর্ডার এলাকার চেকপয়েন্ট। কড়া নিরাপত্তার চাদরে ঘিরে ফেলা হয়েছে গোটা এলাকা।

পুলিশ সূত্রের খবর, ওই এলাকার প্রায় ৫০০ ফোন ট্র্যাক করে তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ। যে কোনও উপায়ে অপরাধীকে ধরতে শুরু হয়েছে জোর তত্‍পরতা। ওই এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এলাকা থেকে অপরাধীর ফিংগারপ্রিন্ট সংগ্রহ করা হচ্ছে। স্থানীয়দের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।