রাজাভাতখাওয়া প্রজনন কেন্দ্র থেকে ছাড়া হল ৮টি বিলুপ্তপ্রায় শকুন

269

আলিপুরদুয়ার: রাজাভাতখাওয়া শকুন প্রজনন কেন্দ্র থেকে আটটি বিলুপ্তপ্রায় শকুন খোলা আকাশে ছেড়ে দেওয়া হল। ফেব্রুয়ারি মাসে আরও আটটি শকুন খোলা আকাশে ছাড়ার পরিকল্পনা নিয়েছে বন দপ্তর। শনিবার যে আটটি শকুন খোলা আকাশে ছাড়া হয় তার মধ্যে দু’টি হোয়াইট ব্যাকড প্রজাতির এবং বাকি ছ’টি হিমালয়ান গ্রিফন প্রজাতির বলে জানা গিয়েছে। এদিন শকুন প্রজনন কেন্দ্রে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য বন দপ্তরের মুখ্য বনপাল(হফ) রবিকান্ত সিনহা, রাজ্য বন্যপ্রাণ শাখার প্রধান মুখ বনপাল বিনোদন কুমার যাদব, উত্তরবঙ্গের প্রধান মুখ্য বনপাল বিকে সুদ, বক্সার এফডি শুভঙ্কর সেনগুপ্ত সহ অন্যান্য বনাধীকারিক।

বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের ক্ষেত্র অধিকর্তা শুভঙ্কর সেনগুপ্ত বলেন, ‘এদিন মোট আটটি শকুন খোলা আকাশে ছাড়া হয়েছে। তার আগে অবশ্য ওই শকুনদের রিলিজ এভিয়ারিতে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। খোলা আকাশে ছেড়ে দেওয়া শকুনদের গলায় স্যাটেলাইট ট্যাগ লাগানো হয়েছে। গত বছর প্রথম দফায় ছাড়ার পর এদিন দ্বিতীয় দফায় মুক্ত আকাশে শকুন ছাড়া হল।’

- Advertisement -

বিটিআর সূত্রে জানা গিয়েছে, এই প্রথম প্রজনন কেন্দ্রে জন্ম নেওয়া কোনও শকুনকে মুক্ত আকাশে ছাড়া হল। রাজাভাতখাওয়ায় প্রথম দফায় যে শকুন খোলা আকাশে ছাড়া হয়েছিল সেগুলো সবই ছিল বিভিন্ন জায়গা থেকে উদ্ধার করা শকুন। কিন্তু এবার রাজাভাতখাওয়াতেই জন্ম নেওয়া শকুন খোলা আকাশে ছাড়ায় খুশি পরিবেশপ্রেমীরা।