সিডনির ৯৭ বদলে দিয়েছে পন্থকে, মন্তব্য তারকের

242

অরিন্দম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা : টিম ম্যানেজমেন্ট তোমার উপর ভরসা করেছে। এর প্রতিদান তোমায় দিতেই হবে। প্রমাণ করতে হবে, সেরা উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হওয়ার মশলা রয়েছে তোমার। বক্তার নাম তারক সিনহা। শ্রোতা ঋষভ পন্থ। গাব্বা টেস্ট শুরুর আগে শিষ্য ঋষভকে মোবাইলে এভাবেই উৎসাহ দিয়েছিলেন কোচ তারক। তাঁর কথা রেখেছেন পন্থ। সমালোচকদের জবাব দিয়ে তিনি প্রমাণ করেছেন, হাম কিসিসে কম নেহি। গাব্বা টেস্টের শেষ দিনে অপরাজিত ৮৯ করে টিম ইন্ডিয়াকে ঐতিহাসিক জয় এনে দেওয়ার পাশে সিরিজও জিতিয়েছেন ঋষভ।

গাব্বায় ঐতিহাসিক জয়ের পর টিম ইন্ডিয়ার সদস্যরা তখন সাফল্যের সেলিব্রেশনে মজে। সেসময় কানপুরে ঋষভের কোচের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল উত্তরবঙ্গ সংবাদের তরফে। ফোন ধরে প্রথমেই তারক সিনহা বলে দিলেন, ঋষভের জন্য আজ গর্বের দিন। ওর প্রতিভা নিয়ে আমার মধ্যে কোনওদিনই সংশয় ছিল না। আজ প্রমাণ হল, আমার বিশ্বাসে ভুল ছিল না। যদিও ঋষভের পাশে পুরো ভারতীয় দলকেই অভিনন্দন। বিরাট কোহলি-জসপ্রীত বুমরাহ-মহম্মদ সামিদের ছাড়া এই জয় তারুণ্যের দ্যুতির সেরা উদাহরণ।

- Advertisement -

ব্যক্তিগত কাজে আজ পরিবার নিয়ে কানপুর থেকে দিল্লি যাওয়ার কথা ছিল তারক সিনহার। গাব্বা টেস্টের শেষ দিনের খেলা মিস করতে চাননি বলে আজ দিল্লি যাত্রা বাতিল করেছেন। ঋষভের ছোটবেলার কোচ বলছিলেন, চলতি সিরিজের মাঝে নিয়মিত কথা হয়েছে ঋষভের সঙ্গে। সিডনিতে ও ৯৭ করেছিল। কিন্তু দলকে জেতাতে পারেনি। সেই যন্ত্রণার কথা সম্প্রতি বেশ কয়েকবার শুনেছি ওর মুখে। আমার মতে, সিডনির ওই ৯৭ মানসিকভাবে ঋষভকে বদলে দিয়েছে। ইনিংস গড়ার আত্মবিশ্বাস দিয়েছে। এমন ইনিংস আরও দেখতে পাবেন ওর ব্যাটে। ঋষভ এখন ব্যাট হাতেও পরিণত হয়ে উঠেছে।

টিম ইন্ডিয়ার বর্ডার-গাভাসকার ট্রফি জয়ের পর ভারতীয় টেস্ট দলে ঋষভ যেমন প্রতিষ্ঠা পেলেন, তেমনই ঋদ্ধিমান সাহার টেস্ট কেরিয়ারের উপরও দাঁড়ি পড়ে গেল বলে মনে করছেন অনেকে। ঋষভের কোচ তারক সেই দলের সদস্য হতে চান না। বলছিলেন, ঋদ্ধিমান ভালো উইকেটকিপার, এই ব্যাপারে কোনও সন্দেহ নেই। একসময় মহেন্দ্র সিং ধোনির জন্য আড়ালে থাকতে হয়েছে ঋদ্ধিকে। পরে কী হবে, জানি না। কিন্তু আধুনিক ক্রিকেটে উইকেটকিপারদের ব্যাট হাতে রানও করতে হয়। এই দিক থেকে ঋষভ টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থা অর্জন করেছে বলে আমার বিশ্বাস। সিডনির ৯৭ ও গাব্বায় অপরাজিত ৮৯-এর পর ঋষভকে ধারাবাহিকভাবে টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থার মর্যাদা দিয়ে যেতে হবে। আমার বিশ্বাস, ও পারবে।