চোর সন্দেহে লরিচালককে গণপিটুনির অভিযোগ

171

রায়গঞ্জ: চোর সন্দেহে এক লরিচালককে গণপিটুনির অভিযোগ উঠল ইটাহার থানার কুরবানপুর এলাকায়। অভিযোগ, ওই লরিচালককে গাছে বেঁধে বেধড়ক মারধর করেন গ্রামবাসীদের একাংশ। রড ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাঁর মাথায় আঘাত করা হয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছোয় ইটাহার থানার পুলিশ। গুরুতর জখম ওই চালককে উদ্ধার করে ইটাহার গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করায় পুলিশ। পরে সেখান থেকে তাঁকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়।

পুলিশ ও মেডিকেল সূত্রে জানা গিয়েছে, জখম লরিচালকের নাম পবন কুমার। বাড়ি দিল্লির চুনামুন্ডি এলাকায়। কর্মসূত্রে তিনি হলদিয়ায় থাকেন। শুক্রবার বিকেলে লোহার রড বোঝাই করে আসানসোলের দুর্গাপুর থেকে অসমের ডিব্রুগড়ের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন পবন কুমার। কুরবানপুরে জাতীয় সড়কের ধারে গাছের নীচে বসে বিশ্রাম করছিলেন তিনি। সেখানে একটি ছাগল তাঁর পাশে গিয়ে বসে। তা দেখে গ্রামবাসীদের একাংশ পবনকে ছাগল চোর সন্দেহে গণপিটুনি দেন বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধেও আঙুল তোলেন পবন। তাঁর অভিযোগ, হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ তাঁর সঙ্গে অভব্য আচরণ করেছে। তাঁর পকেট থেকে টাকা কেড়ে নিয়েছে। লরির মধ্যে থেকেও টাকা লুট করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

- Advertisement -

ইটাহার থানার আইসি দীপঙ্কর বিশ্বাস জানান, ছাগল চোর সন্দেহে এক লরিচালককে গণপিটুনির অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। লরিটি থানায় রয়েছে। তবে পুলিশের বিরুদ্ধে যে সমস্ত অভিযোগ করা হয়েছে, তা ভিত্তিহীন।