দৃষ্টিহীন ভবঘুরের চিকিৎসা সহ যাবতীয় ব্যবস্থা করল একদল যুবক

168

ফালাকাটা: দৃষ্টিহীন ভবঘুরের থাকার বন্দোবস্ত করে দিলেন একদল যুবক। ফালাকাটার ওই যুবকদের চেষ্টায় প্রায় এক মাস সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ওই ভবঘুরে। সুস্থ হওয়ার পর বৃহস্পতিবার ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল থেকে ভবঘুরেকে ছুটি দেওয়া হয়। বর্তমানে তাঁর থাকা, খাওয়ার ব্যবস্থাও করে দেওয়া হবে বলে জানান করোনা প্রতিরোধ বাহিনীর যুবকরা।

জানা গিয়েছে, ভবঘুরের নাম অনুপ দে। কয়েক বছর আগে অসম থেকে দৃষ্টিহীন এক যুবক ফালাকাটায় চলে আসে। সে এখানে রাস্তায় রাস্তায় উদ্দেশ্যহীনভাবে ঘোরাঘুরি করছিল। করোনা পরিস্থিতিতে বছর পঁচিশের ওই যুবক আশ্রয় নেয় জটেশ্বর বাজার এলাকায়। মাস দেড়েক আগে খাদ্য সংকটের পাশাপাশি শারীরিকভাবেও সে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাঁর বা পায়ে ক্ষত হয়। এমন অবস্থায় ভবঘুরেকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসে ফালাকাটার করোনা প্রতিরোধ বাহিনীর একদল যুবক। ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে এসে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দেন। অস্ত্রপচারও করা হয় তাঁর।

- Advertisement -

করোনা প্রতিরোধ বাহিনীর তরফে দেবজিৎ পাল বলেন, ‘এই অসহায় যুবকের পাশে দাঁড়াতে পেরে ভালো লাগছে। জটেশ্বর এলাকাতেই ওর থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। নিয়মিত খাবারও দেওয়া হবে।’

ভবঘুরে অনুপ দে বলেন, ‘আমি বাঁচতে চেয়েছিলাম। করোনা প্রতিরোধ বাহিনী এভাবে পাশে না দাঁড়ালে হয়তো এই জীবন ফিরে পেতাম না। ডাক্তারবাবুদেরকেও ধন্যবাদ জানাই।’

এ প্রসঙ্গে ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার চন্দন ঘোষ বলেন, ‘গত ৯ জুন ওই যুবককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সুস্থ হওয়ায় এদিন তাঁর ছুটি হয়।‘