নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধ রুখতে একগুচ্ছ প্রস্তাব দিয়ে চিঠি অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের

83

গাজোল: দিনের পর দিন দেশজুড়ে বাড়ছে নারীদের উপর অত্যাচারের ঘটনা। এই সমস্ত ঘটনায় অভিযোগ দায়ের করা হলেও বিচারব্যবস্থার দীর্ঘসূত্রিতার কারণে মামলার নিষ্পত্তি হতে দিনের পর দিন কেটে যায়। এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আবেদন জানিয়ে চিঠি দিলেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মহঃ মকবুল হোসেন। আগামী দিনে দেশের সমস্ত মুখ্যমন্ত্রীদের কাছেও এবিষয় নিয়ে আবেদন জানাবেন তিনি। গাজোলের আলাল অঞ্চলের রাজারামচকের বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মহঃ মকবুল হোসেন। পাশাপাশি, তিনি একজন নির্যাতিতার পিতাও।

মকবুল বাবু জানান, দিনের পর দিন সারাদেশে নারীদের উপর অত্যাচারের ঘটনা বেড়েই চলেছে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে সারা দেশেই ট্রায়াল কোর্ট এবং ডিস্ট্রিক্ট সেশন কোর্টের অপ্রতুলতার কারণে এই সমস্ত মামলা নিষ্পত্তির হার খুবই কম। ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর একটি তথ্য থেকে জানা যাচ্ছে ২০১৯ সাল পর্যন্ত সারা দেশে ১৫৬৩৮০১টি মামলার নিষ্পত্তি হয়নি। এই অবস্থায় দাড়িয়ে তাঁর আবেদন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি শক্তিশালী কমিটি গঠন করা হোক। যার শীর্ষে থাকবেন প্রধানমন্ত্রী। কমিটিতে রাখা হোক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী, নারী এবং শিশু কল্যাণ মন্ত্রী, বিরোধী দলনেতা এবং সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের।

- Advertisement -

রাজ্যস্তরেও মুখ্যমন্ত্রীকে মাথায় রেখে একটি কমিটি গঠন করা হোক। সারা বছরে কমপক্ষে একবার মিলিত হয়ে এই কমিটি নারীদের উপর অত্যাচারের ঘটনা নিয়ে পর্যালোচনা করুক। এছাড়াও তাঁর আবেদন, সুপ্রিম কোর্টের একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিকে নিয়ে একটি কমিশন গঠন করা হোক। এই কমিশন ধর্ষণ এবং মহিলাদের উপর অত্যাচারের মামলাগুলোর দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য সাহায্য করবে। মকবুল বাবু জানান, এতে নারীদের উপর অত্যাচারের ঘটনা হয়ত পুরোপুরি বন্ধ করা সম্ভব হবে না। কিন্তু কড়া হাতে এটি দমন করা সম্ভব। তবে এই সমস্ত অপরাধ দমনে শুধু সরকারি হস্তক্ষেপই যথোপযুক্ত নয়। সাধারণ মানুষকেও সমানভাবে এগিয়ে আসতে হবে।