২১ জুনের সূর্যগ্রহণে ধ্বংস হবে করোনা ভাইরাস, দাবি পরমাণু বিজ্ঞানীর     

744

চেন্নাই: ২১ জুনের সূর্যগ্রহণে ধ্বংস হবে করোনা ভাইরাস- এমনই দাবি জানিয়েছেন চেন্নাইয়ের এক পরমাণু  বিজ্ঞানী। সারা বিশ্বে করোনা ক্রমশ মারাত্মক আকার নিচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে ওই বিজ্ঞানীর দাবিতে রীতিমতো সাড়া পড়ে গিয়েছে।

উল্লেখ্য, সারা বিশ্বে ৮৩ লক্ষের বেশি মানুষ এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। প্রায় সাড়ে ৪ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। আমেরিকায় করোনার প্রভাব সবথেকে বেশি পড়েছে। সেখানে প্রায় ২২ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষেরও বেশি মানুষের। আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে ভারতে সারা বিশ্বে চতুর্থ স্থানে রয়েছে। ভারতে এখনও পর্যন্ত ৩ লক্ষ ৬৬ হাজার ৯৪৬ জন মানুষ সংক্রামিত হয়েছেন। মৃতের সংখ্যা ১২ হাজার ২৩৭। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের জন্য গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে। মডার্ণা, জিলিয়াড, সেরামের মতো ওষুধ প্রস্তুতকারক কোম্পানিগুলি ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে।

- Advertisement -

কয়েকদিন আগে ব্রিটেনের গবেষকরা দাবি করেছেন, ডেক্সামেথাসনের ব্যবহারে করোনা আক্রান্ত সংকটজনক রোগীকে বাঁচানো যাবে। এই স্টেরয়েডের ব্যবহারে সাফল্যও মিলেছে বলে দাবি গবেষকদের। তবে ভ্য়াকসিন আবিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত করোনা সংক্রমণের হাত থেকে চিরতরে মুক্তি পাওয়া যাবে না বলেই মত বিশেষজ্ঞদের। এই অবস্থায় চেন্নাইয়ের পরমাণু বিজ্ঞানী ডঃ কেএল সুন্দর কৃষ্ণা চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন।

তাঁর দাবি, সূর্য গ্রহণের সঙ্গে করোনা ভাইরাসের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। ২১ জুন সূর্য গ্রহণের পর পৃথিবীতে করোনার প্রকোপ কমতে শুরু করবে। তাঁর আরও দাবি, করোনা কোনওভাবেই ল্যাবরেটরি থেকে উৎপন্ন হয়নি। এটি একটি মহাজাগতিক ঘটনা। মহাকাশ থেকেই করোনা ভাইরাসের সৃষ্টি। তাঁর এমন দাবির পরেই দেশের বিজ্ঞানীদের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

২১ জুনের সূর্যগ্রহণে ধ্বংস হবে করোনা ভাইরাস, দাবি পরমাণু বিজ্ঞানীর     | Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

ডঃ কেএল সুন্দর কৃষ্ণা জানান, গত বছর ২৬ ডিসেম্বর ছিল সূর্যগ্রহণ। তারপর থেকেই চিনে এই ভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে শুরু করে। অর্থাৎ সূর্য গ্রহণের পরই এই ভাইরাসের উৎপত্তি। তাই পরবর্তী সূর্যগ্রহণ অর্থাৎ ২১    জুন এই ভাইরাস ধ্বংস হবে। ভাইরাস অক্ষম হয়ে পড়বে।

ডঃ কেএল সুন্দর কৃষ্ণা আরও জানিয়েছেন, ২৬ ডিসেম্বর সূর্য গ্রহণের পর পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে রাসায়নিকের পরিবর্তন ঘটেছিল। সেসময়ে করোনা ভাইরাসের জন্ম হয়। সূর্য গ্রহনের সময় তৈরি হওয়া বায়ো নিউক্লিয়ার ইন্টার অ্যাকশন বিভিন্ন ভাইরাস সৃষ্টির অন্যতম কারণ। আগামী ২১ জুন সূর্যের বলয়গ্রাস পূর্ণগ্রাস গ্রহণ হবে। সেদিনও বায়ুস্তরে বিভিন্ন রাসায়নিক পরিবর্তন হবে। সেদিন করোনা ভাইরাস ধ্বংস হওয়ার বিরাট সম্ভাবনা রয়েছে বলে দাবি ডঃ কেএল সুন্দর কৃষ্ণার। ২১ জুনের পর করোনার সংক্রমণ সারা বিশ্বে কমে কি কমে না, এখন সেটাই দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন সকলে।