হেমতাবাদে চালু হল সাময়িক পাঠশালা

116

হেমতাবাদ: দীর্ঘ দেড় বছরের বেশি সময় ধরে বন্ধ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ফলে গ্রামগঞ্জের পড়ুয়ারা বিপাকে পড়েছে। লকডাউনে দিনমজুর পরিবারগুলির আয় একেবারে কমে যাওয়ায় প্রভাব পড়েছে শিশুদের উপর। পড়াশোনার প্রতি শিশুদের ঝোঁক যাতে নষ্ট না হয়ে যায়। পাশাপাশি স্কুলছুট রুখতে নিখিল বঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির হেমতাবাদ সার্কেলের সদস্যরা বিদ্যালয় শিক্ষার বিকল্প হিসেবে সাময়িক পাঠশালার মাধ্যমে পঠন-পাঠন শুরু করল। রবিবার কাশিমপুর গ্রামে সাময়িক পাঠশালার উদ্বোধন করা হয়।

হেমতাবাদ ব্লকের পিছিয়ে থাকা প্রতিটি গ্রামে সংগঠনের উদ্যোগে সাময়িক পাঠশালা তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিদ্যালয়গুলিতে পঠন-পাঠন শুরু না হওয়া পর্যন্ত পাঠশালাগুলিতে শিশুদের নিয়মিত পাঠ দান করবেন শিক্ষকেরা। সংগঠনের জেলা সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু রায় চৌধুরী বলেন, ‘সংগঠনের হেমতাবাদ সার্কেলের উদ্যোগে আজ থেকে শুরু হল করোনা পরিস্থিতিতে বিকল্প শিক্ষার অঙ্গ হিসেবে সাময়িক পাঠশালা। হেমতাবাদ সার্কেলের পিছিয়ে থাকা গ্রামগুলিতে শিক্ষকরা গিয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের শিক্ষা দান করবেন।‘ সাময়িক পাঠশালার এদিন হেমতাবাদের কাশিমপুর গ্রামে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন এবিপিটিএ উত্তর দিনাজপুর জেলা কমিটির সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু রায়চৌধুরী। পাশাপাশি খুদে শিক্ষার্থীদের হাতে শিক্ষার উপকরণ ও অন্যান্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়।

- Advertisement -