পসকো আইনে আদালতে প্রথম মামলার শুনানি শেষে দোষী সাব্যস্ত রানিগঞ্জের যুবক

478

আসানসোল: পসকো আইনে আসানসোল আদালতে প্রথম মামলার শুনানির শেষে দোষী সাব্যস্ত হল আসানসোলের রানিগঞ্জের এক যুবক। বুধবার আসানসোলের পসকো আদালতের বিচারক শরণ্যা সেন প্রসাদ রানিগঞ্জ থানার রনাইয়ের বাসিন্দা কৃষ্ণ ভুঁইয়াকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন। আগামী ৪ ডিসেম্বর শুক্রবার বিচারক সাজা ঘোষণা করবেন বলে এদিন এই মামলার সরকারি আইনজীবী(পিপি) তাপস উকিল জানিয়েছেন। জানা গিয়েছে, ২০১৭ সালের ১৯ এপ্রিল সকালে রানিগঞ্জের রনাইয়ের বাসিন্দা কৃষ্ণ ভুঁইয়া এলাকার তিন বছরের এক শিশু কন্যাকে তার বাড়ির সামনে থেকে তুলে নিজের বাড়িতে নিয়ে যায়। ওই শিশু কন্যার মা নেই। বাবা পেশায় দিনমজুর। সে রনাইয়ে জ্যাঠাইমার কাছে থাকত। শিশু কন্যাকে খুঁজে তার বাড়ির লোকেরা পায়নি। বেশ কিছুক্ষণ পরে শিশু কন্যাকে রক্তাক্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

এরপর বাড়ির লোকেরা তাকে হাসপাতালে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। চিকিৎসক পরীক্ষা করে বলেন, ‘শিশুটির উপরে শারীরিক নির্যাতন চালানো হয়েছে। তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে খুব খারাপ ভাবে। এরপর সেদিনই পরিবারের তরফে রানিগঞ্জ থানায় গোটা ঘটনার কথা জানিয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়। ঘটনার তদন্ত করতে নেমে পুলিশ বিভিন্ন সূত্র থেকে জানার পরে কৃষ্ণ ভুঁইয়াকে গ্রেপ্তার করে। সে পুলিশের জেরায় দোষ স্বীকার করে। এরপর তার বিরুদ্ধে পুলিশ পসকো আইনে মামলা করে। পুলিশ তাকে আসানসোলের পসকো আদালতে পাঠালে তার জেল হাজত হয়। সেদিন থেকে কৃষ্ণ জেল হাজতেই রয়েছে। সে ছাড়া পায়নি। তারপর সেই মামলার বিচার শুরু হয়।

- Advertisement -

সাড়ে তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে চলা মামলায় পুলিশের তরফে শিশু কন্যার মেডিকেল পরীক্ষার রিপোর্ট আদালতে দেওয়া হয়। চিকিৎসক সহ বিভিন্ন মানুষেরা বিচারকের সামনে সাক্ষ্য দেন। সবকিছুর শেষে এদিন সেই মামলায় পসকো আদালতের বিচারক শরণ্যা সেন প্রসাদ কৃষ্ণ ভুঁইয়াকে দোষী সাব্যস্ত করেন। মামলার সরকারি আইনজীবী তাপস উকিল বলেন, আসানসোল আদালতে পসকো আইনে এই প্রথম কোন মামলার শুনানির শেষে অভিযুক্ত দোষী সাব্যস্ত হল। শুক্রবার বিচারক মামলার চূড়ান্ত শুনানিতে তার সাজা ঘোষণা করবেন।