নতুন দলের নাম ঘোষণা আব্বাস সিদ্দিকীর

1098

কলকাতা: বৃহস্পতিবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে নিজের নতুন রাজনৈতিক দলের নাম ঘোষণা করলেন ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী। এদিন তিনি জানান, দেশের কোনও রাজনৈতিক দলের উপরই তাঁর বিশ্বাস বা ভরসা নেই। তাই দেশের শোষিত, নিপীড়িত, বঞ্চিত মানুষের জন্যই তাঁরা রাজনৈতিক দল গড়লেন। দলের নাম ‘ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট‘।

আনুষ্ঠানিকভাবে এদিন ওই ফ্রন্টের চেয়ারম্যান হিসেবে তাঁর ভাই নওশাদ সিদ্দিকী, আর রাজ্য সভাপতি হিসেবে সিমন সরেনের নাম ঘোষণা করেন তিনি। আব্বাস সিদ্দিকী জানান, তাঁরা খুব শীঘ্রই দলের কার্যনির্বাহী কমিটির নাম ঘোষণা করবেন। তিনি ওই দলের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে কাজ করবেন। আগামী ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের মধ্য দিয়েই দলের প্রথম কর্মসূচির সূচনা হবে।

- Advertisement -

এদিন তিনি নিজের নতুন দলের নাম ঘোষণা করতে গিয়ে জানান, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল সংবিধান মেনে চলার ব্যাপারে শপথ নিলেও বাস্তবে তারা কিছুই মানে না। এদিন তিনি দাবি করেন, তাঁর দল সংবিধান মেনেই কাজকর্ম চালিয়ে যাবে। এক প্রশ্নের উত্তরে আব্বাস সিদ্দিকী জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুসলিমদের জন্য অনেক কিছু করার কথা বললেও বাস্তবে তার কিছুই করেননি।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, তাঁদের দল ঘোষণার জন্য বিজেপি লাভবান হবে একথা যাঁরা বলছেন, তাঁরা মূর্খের স্বর্গে বাস করছেন। শুধু মিম নয়, অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গেও তাঁরা জোট গড়তে আগ্রহী। তাঁদের দলের দরজা সকলের জন্য খোলা রয়েছে। পাশাপাশি আব্বাস সিদ্দিকী দাবি করেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি সত্যিই এরাজ্য থেকে বিজেপিকে হঠাতে চাইতেন তাহলে তিনি সমস্ত রাজনৈতিক দলকে নিয়ে একটি জোট গঠন করতেন। কিন্তু বাস্তবে তা তিনি করেননি।

আব্বাস সিদ্দিকী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পরিবারতন্ত্র নিয়ে সোচ্চার হলেও তাঁদের দলের চেয়ারম্যান করা হয়েছে তাঁর ভাইকেই। এটা কি পরিবার তন্ত্র নয়? সে ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তা এড়িয়ে যান আব্বাস সিদ্দিকী।

তবে ফুরফুরা শরীফের পীরজাদার রাজনৈতিক দলে আসার বিষয়ে করা প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, তাঁর ধর্ম কখনও বলেনি যে রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করা যাবে না। আর সমস্ত পীরজাদার আশীর্বাদ তাঁর মাথার উপর রয়েছে বলেই তিনি নতুন দলের নাম ঘোষণার সাহস পেয়েছেন।

বিজেপি সাম্প্রদায়িক দল কিনা? এ প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে আব্বাস সিদ্দিকী জানান, এই বিষয়ে তিনি মন্তব্য করবেন না। তবে তাঁর মতে, বিজেপি দেশের জন্য একটি ক্ষতিকারক দল। তিনি জানান, তাঁদের প্রাথমিক লক্ষ্য, ২৯৪টি আসনেই প্রার্থী দেওয়া। তবে এই প্রার্থী দিতে গিয়ে তাঁরা কার কার সঙ্গে জোট করবেন, সেটা দলের কার্যনির্বাহী কমিটিই সিদ্ধান্ত নেবে বলেও তিনি জানিয়েছেন আব্বাস সিদ্দিকী।